শিরোনাম:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে গলায় বেল্ট পেঁচানো অবস্থায় উদ্ধার হওয়া মেঘশিমুল গ্রামের গৃহবধূকে (৪৫) ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় গ্রেফতার দুজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন-বিজয়নগরের গলিমোড়া গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে আরশাদুল ইসলাম প্রকাশ সুরুজ মিয়া (১৭) ও নিদারাবাদ গ্রামের আলাউদ্দিন মিয়ার ছেলে মো. সালাউদ্দিন প্রকাশ সালু।

পুলিশের দেওয়া তথ্য মতে, রবিবার সিলেটের জৈন্তাপুর থানার আসামপাড়া গুচ্ছ গ্রামের ফজার আলীর বাড়ি থেকে সুরুজ মিয়া ও তার দেওয়া তথ্যমতে নিজ বাড়ি থেকে সালুকে গ্রেফতার করা হয়।

সোমবার তারা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাহিদুল ইসলামের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়।

বিজয়নগর থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার সকালে উপজেলার হরষপুর ইউনিয়নের শিশা জালালাপুর গ্রামের পুকুর পাড় থেকে ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই গৃহবধূর গলায় বেল্ট পেঁচানো ছিল। তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ দুজনকে গ্রেফতার করে।

প্রথমে তারা পুলিশের কাছে পরে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

বিজয়নগর থানার ওসি মো. আতিকুর রহমান জানান, গ্রেফতারদের মধ্যে একজনের সঙ্গে ওই নারীর আগে থেকেই পরিচয় ছিল। সেই সুবাদে ওই নারীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে তার কাছ থেকে টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য হত্যা করা হয়।



মন্তব্য চালু নেই