মেইন ম্যেনু

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে হারিয়ে পার্লামেন্টের নিয়ন্ত্রণ নিলো এমপিরা

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বিচ্ছেদ কার্যকরে আবারো বাধার মুখে পড়ল যুক্তরাজ্য। চুক্তিহীনভাবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বের হয়ে যাওয়া নিয়ে পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারালেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। নিজ দলের অনেকেই চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের বিরোধীতা করায় বাধার মুখে পড়েন তিনি।

সাময়িক বিরতির পর দেশটির পার্লামেন্টের অধিবেশন শুরুর প্রথম দিনই বেক্সিটে দেরি এবং চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট আটকাতে বিল উত্থাপন করেন বিরোধীরা।

পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে হাউস অফ কমন্সে উত্থাপিত বিলে ভোট পড়ে ৩২৮টি আর বিপক্ষে পড়ে ৩০১টি ভোট। ক্ষমতাসীন দলের অনেকেই বিলটির পক্ষে ভোট দিয়েছেন। কেননা প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের চুক্তিহীন বেক্সিট কার্যকরে তরিঘরি দেখে অনেকেই এর বিরোধীতা করছেন। এ পর্যন্ত বরিস জনসনের দলের মোট ২১ এমপি বিরোধী দলে যোগ দিয়েছেন।

ভোটের এ ফলাফলে ক্ষুব্ধ বরিস জনসনের সামনে দুটি পথ। হয় ব্রেক্সিটের সময় বাড়ানোর আবেদন করতে হবে নয়তো আগাম সাধারণ নির্বাচনের ডাক দিতে হবে। প্রধানমন্ত্রী এখন এগুচ্ছেন নির্বাচনের দিকে। আগামী ১৪ অক্টোবর নির্বাচনের ডাক দেবেন তিনি।

প্রধান বিরোধী দল লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিনও আগাম জাতীয় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত থাকার কথা আগেই জানিয়েছেন।

তবে বিরোধীদের এখন দাবি, ‘নো ডিল ব্রেক্সিট’ বা চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিট যেন না হয় সেটি আগে নিশ্চিত করা, তারপর যত দ্রুত সম্ভব সাধারণ নির্বাচনের প্রস্তুতি।



মন্তব্য চালু নেই