মেইন ম্যেনু

ভারতে সুবিধা বঞ্চিতে শীর্ষে আদিবাসী ও মুসলিম

ভারতে অবস্থিত দলিত শ্রেণি, আদিবাসি ও মুসলিম ধর্মের অনুসারিরা সবচেয়ে বেশি বঞ্চিত। রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক দিক দিয়ে তারা এখনো পিছিয়ে রয়েছে। গত বছরে প্রকাশিত প্রতিবেদনে যে চিত্র ছিল, এক বছরেও ওই চিত্রের পরিবর্তন হয়নি। গড়ে ভারতবাসির জীবন-মান উন্নয়ন হলেও কোনো প্রভাব পড়েনি এই চার শ্রেণির মানুষের ওপর।

একটি বেসরকারি গবেষণা সংস্থার তথ্যর বরাত দিয়ে এ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে দেশটির গণমাধ্যম। নয়া দিল্লিতে সেন্টার ফর ইকুইটি স্টাডিজের (সিইএস) প্রকাশিত ২০১৬ ইন্ডিয়ান এক্সক্লুসন রিপোর্ট (আইএক্সআর)-এ এ তথ্যটি প্রকাশ করে। সেই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতে সরকারি সামগ্রী থেকে সুবিধা পাওয়ার দিক থেকে দলিত, আদিবাসী এবং মুসলিমরা এখনো সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় রয়েছে।

সিইএস পরিচালক হর্ষ মান্দার বলেন, ২০১৬ সালের প্রতিবেদনে চারটি সরকারি পণ্যের সুবিধাবঞ্চিতদের বিষয়টি পর্যালোচনা করা হয়। এগুলো হচ্ছে : বয়স্ক ভাতা, ডিজিটাল সুবিধা, কৃষি ভূমি, বিচারাধীন মামলায় আইনগত সুবিধা। এসব সুবিধা লাভে সবচেয়ে বঞ্চিত চারটি গ্রুপের অবস্থাও এতে পর্যালোচনা করা হয়।

এতে বলা হয়, নানাভাবে যাচাই বাছাই করার পর দেখা গেছে, গত প্রতিবেদনের মতো এবারো ঐতিহাসিকভাবে পশ্চাদপদ চারটি গ্রুপ- দলিত, আদিবাসী, মুসলিম এবং অক্ষম ও বয়স-সংশ্লিষ্ট দুর্বল লোকেরাই অব্যাহতভাবে ওইসব সুবিধা থেকে বঞ্চিত রয়ে গেছে।

কৃষি জমিতে অধিকারের মাধ্যমে আর্থ-সামাজিক অবস্থা অনেকাংশে প্রতিফলিত হয়। দেখা গেছে, ভূমি মালিকরা প্রায় সবক্ষেত্রে উচ্চবর্ণের সদস্য। চাষীরা সাধারণ মধ্য বর্ণের। আর কৃষিশ্রমিকরা মূলত দলিত ও আদিবাসী। দলিতদের মধ্যে ভূমিহীনতা সর্বোচ্চ মাত্রায় দেখা যায়। তাদের ৫৭.৩ ভাগ ভূমিহীন। এরপর রয়েছে মুসলিমরা। তাদের মধ্যে ভূমিহীনতা ৫২.৬ ভাগ। আর যেসব পরিবারের প্রধান নারী, তাদের মধ্যে ভূমিহীনতা ৫৬.৮ ভাগ। ‘উন্নয়ন কার্যক্রমের’ কারণে উচ্ছেদ হওয়া লোকজনের প্রায় ৪০ ভাগই আদিবাসী।

দলিত, মুসলিম এবং নারীর মালিকানাধীন জমির পরিমাণ একেবারেই নগণ্য। দলিতদের মাত্র ২.০৮ ভাগ দুই হেক্টর বা এর বেশি জমির মালিক। তাছাড়া দলিতদের মালিকানায় থাকা জমির মানও খুব খারাপ। তাদের মালিকানায় থাকা জমির ৫৮ ভাগে সেচ সুবিধা নেই। ভূমি সংস্কার প্রয়াসে দলিত, নারী বা মুসলিমরা তেমন কোনো সুবিধা পায় না। তাদেরকে জমি বরাদ্দ করা হলেও সেটা হয় কেবল কাগজে কলমে। বরাদ্দের পর তাদেরকে বলপূর্বক উচ্ছেদ করা হয়।

ডিজিটাল সুবিধা থেকে বঞ্চিতের বিষয়টিও আইএক্সআর প্রতিবেদনে ওঠে এসেছে। ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর দিক থেকে ভারত বিশ্বের সেরা ৫টি দেশের একটি হলেও প্রায় ১.০৬৩ বিলিয়ন ভারতীয় এখনো এই পরিষেবা থেকে বঞ্চিত। দারিদ্র্য এবং ভৌগোলিক অবস্থান তাদের ডিজিটাল সুবিধা প্রাপ্তিতে বড় সমস্যা। শহর এলাকার লোকজন ইন্টারনেট সুবিধা বেশি ভোগ করে।



মন্তব্য চালু নেই