শিরোনাম:

ভিক্ষা করে সন্তানকে দাখিল পাশ করালেন তৈয়ুব আলী

মো: গোলাম আযম সরকার (পীরগাছা) রংপুর: মানুষের কাছে গিয়ে গিয়ে টাকা রোজগার করে নাজিমুদ্দিন নয়ন নামের এক সন্তানকে এবার দাখিল পাশ করালেন রংপুরের পীরগাছা উপজেলার সদর ইউনিয়নের পবিত্রঝাড় (নাওয়ডারা) গ্রামের নেংড়া ফকির তৈয়ুব আলী।

তিনি বলেন, আমার আশা ছিল প্রথম ছেলেকে আমি মুফত্তি বানাবো সেই জন্যই প্রথমে আমি পীরগাছার এমদাদুল উলুম হাফিজিয়া নামক এক মাদরাসায় ভর্তি করে দেই , কিন্তু টাকা না থাকার কারনে ওই খান থেকে ছেলেকে নিয়ে দশগাঁয় দারুল উলুম নামের এক মাদরাসায় ভর্তি কয়ে দেয়, সেই খানে তাঁকে লেখাপড়া করার জন্য আমার প্রতিবেশি মোজ্জামেল হক চাচার স্ত্রী তার হাফেজিয়া পড়ার খরচ ভবন করলে তার হাফিজিয়া সম্পূণ হলে আমি সবার সাথে কথা বলে ছেলেকে পবিত্রঝাড় কারামতিয়া ফাজিল মাদরাসায় ভর্তি করি।

সে যায় হয় । তিনি এসময় বলেন তার লেথা পড়া চালিয়ে যাওয়ার জন্য এলাকার অনেকেই সহযোগিতা করেছিল। সবার সগযোগিতায় ছেলেকে এবার দাখিল পাশ করাতে পারালাম। তিনি এসময় বলেন ফরম ফিলাপের টাকাও খুবেই কষ্ট করে ১২০০ টাকা যোগাড় করে মাদরাসায় গিয়ে বলেছি আমি আর দিতে পারবো না দয়া করে ফরমফিল্মাব করে দেন । যাক সেই টাকা দিয়ে তারা পরে ফরম ফিল্মাব করে দিয়েছিলেন।

তবে সবচাইতে বড় কথা হল তার ছেলেকে আর মুফত্তি বানানোর স্বপ্ন হয়তোবা আর পুরুন হবে না, যদিও তার বাবার স্বপ্ন তাকে যে কোন মূলে মুফত্তি বানাবেন। বর্তমানে নাজিমুদ্দিন ঢাকায় গেছেন একটি পোশাক কারখানায় টাকা রোজগার করার জন্য।