প্রধান ম্যেনু

মন্ত্রিসভায় হঠাৎ রদবদল

মন্ত্রিসভার তিনটি পদে রদবদল এনেছে সরকার। গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমকে দেওয়া হয়েছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। অন্যদিকে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলীকে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী এবং শরীফ আহমেদকে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সই করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, রুলস অব বিজনেস, ১৯৯৬-এর রুল ৩(৪) অনুযায়ী একজন মন্ত্রী ও দুই প্রতিমন্ত্রীর মধ্যে মন্ত্রণালয় পুনর্বণ্টন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিজয়ী হয়ে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো মন্ত্রিসভায় রদবদল এলো।

এর আগে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ২০১৯ সালের ৬ জানুয়ারি নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম ঘোষণা করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। ৭ জানুয়ারি শপথ নেন ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও তিন জন উপমন্ত্রী।

পরে গত বছরের মে মাসে মন্ত্রিসভায় সামান্য রদবদল আনা হয়। সে সময় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে দফতর বদল করে তথ্য প্রতিমন্ত্রী করা হয়।

দুই মাস পর জুলাইয়ে ইমরান আহমেদকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী থেকে মন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়। একইসঙ্গে সংসদ সদস্য ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরাকে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নতুন প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মন্ত্রিসভার এই রদবদলও একেবারে অপ্রত্যাশিত কিছু নয়। গত ২২ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছিলেন, নতুন বছরের শুরুর দিকেই মন্ত্রিসভায় রদবদল আসতে পারে। ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের কারণে অবশ্য জানুয়ারি মাসে সে ঘোষণা আসেনি।



মন্তব্য চালু নেই