শিরোনাম:

মাদারীপুরের কালকিনিতে পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ১০

মাদারীপুরের কালকিনিতে পূর্ব শত্রুতার জেরে হামলার ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার (১২ আগস্ট) রাতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বর্তমান ইউপি সদস্যদের লোকজনের হামলায় পরাজিত ইউপি সদস্য প্রার্থীর ৫ কর্মীসহ ১০ জন আহত হয়েছে।

আহতদেরকে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

ভুক্তভোগী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ১৬ জুন কালকিনি উপজেলার পূর্ব এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কালাই সরদারেরচর গ্রামের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য প্রার্থী হিসেবে দুলাল সরদারের সাথে প্রতিদ্বন্ধিতা করেছেন মোঃ আবদুল। সেই নির্বাচনে আবদুলকে হারিয়ে ইউপি সদস্য হিসেবে বিজয়ী হয়েছিলেন দুলাল সরদার।

এবিষয় নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে উভয় পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে শত্রুতা চলছিল। এর জের ধরে হঠাৎ করে ইউপি সদস্য দুলাল সরদারের কর্মী জসিম হাওলাদারের নেতৃত্বে পলাশ, রহিম, জুলহাস, জামাল ও খবিরসহ বেশ কয়েকজন মিলে পরাজিত প্রার্থী আবদুলের লোকজনের উপর হামলা চালায়। এতে আহত হন শাহআলম বেপারী (৪৫), সুমন (৩৫), অহেদ বেপারী (২৫), সবুজ (২৫) ও জসিম সরদারসহ (৪৮) ১০ জন।

আহতদেরকে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। হামলার খবর পেয়ে কালকিনি থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

মোঃ আবদুল বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুলাল সরদারের কর্মী জসিম তার লোকজন নিয়ে আমার লোকজনের উপর হামলা চালিয়ে আহত করেছে।

তবে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য দুলাল সরদার এ হামলার ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, এই হামলার ঘটনায় আমার কোন সমর্থক বা কর্মী জড়িত নাই।

এব্যাপারে কালকিনি থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ নাসির উদ্দিন জানান, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেছি। এ ঘটনায় মো. আবদুল বাদী হয়ে কালকিনি থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী আইনানুগ পদেক্ষপ গ্রহণ করা হবে।