মেইন ম্যেনু

মেয়ের কথিত প্রেমিককে হাতুড়িপেটা করলেন বাবা

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ী ইউনিয়নের গজারিয়া গ্রামে সোহাগ সিকদার (৩৫) নামে এক যুবককে হাতুড়িপেটা করেছেন আবেদ আলী শেখ ও তার লোকজন। গুরুতর আহতাবস্থায় সোহাগ সিকদার বর্তমানে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সে মাদারীপুর সদর উপজেলার শ্রীনদী গ্রামের সেকেন্দার আলী সিকদারের ছেলে।

সোহাগ রাজৈর উপজেলার গজারিয়া গ্রামে তার নানা বাড়িতে থাকে। আবেদ আলী শেখের মেয়ের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ ঘটনায় আবেদ আলী শেখ বাদী হয়ে সোহাগ সিকদারের বিরুদ্ধে রাজৈর থানায় শ্লীলতাহানির মামলা দায়ের করেছে।

সোহাগ সিকদার ও স্থানীয়রা জানান, আবেদ আলী শেখের নবম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ের সাথে তার দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক চলছে। বিষয়টি আবেদ আলী পেরে মেরে ফেলার হুমকি দেন বলেও সোহাগের অভিযোগ।

শুক্রবার দুপুরে সোহাগ ইজিবাইকে চড়ে মাছের ঘেরে দায়িত্ব পালন করতে যাওয়ার সময় আবেদ আলী শেখ, এলেম শেখের ছেলে সিদ্দিক শেখ, তার ছেলে রাজিব শেখ এবং কালাম শেখের ছেলে ফরহাদ শেখ ইজিবাইক থেকে টেনে হিচড়ে নামিয়ে গজারিয়া গ্রামের ইঙ্গুল হাওলাদারের বাড়ীর সামনে রাস্তার উপর হাতুড়ি দিয়ে উপর্যুপুরী পিটিয়ে মারাত্বক আহত করেন। তার চিৎকার শোনে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা সোহাগকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা সোহাগকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেয়। বর্তমানে সোহাগ শিকদার মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সোহাগের মামা মিজানুর রহমান জানান, আমার ভাগ্নে মার খেয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় আমরা থানায় মামলা করতে গেলে ওসি সাহেব আমাদের মামলা না নিয়ে হামলাকারীদের পক্ষে সোহাগের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মামলা নিয়েছে। আমরা এখন আদালতে শরনাপন্ন হবো।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বিধান বিশ্বাস বলেন, এ ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় নিয়ে ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে ন্যায় বিচার পাওয়ার জোর দাবী জানাচ্ছি।

অভিযুক্ত আবেদ আলী জানান, আমার নবম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে শুক্রবার রাস্তায় গেলে সোহাগ তার ওড়না ধরে টান দেয় এবং অশালীন আচরণ করে। পরে মেয়ে এ ঘটনা তার মাকে জানায়। এ ব্যাপারে সোহাগের কাছে জানতে চাইলে সে বলে ‘করেছি, তাতে কী হয়েছে।’ এই কথা শুনে আমার লোকজন ওকে একটু ঠেলা ধাক্কা দিয়েছে।

রাজৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাজাহান মিয়া বলেন, মেয়ের বাবার অভিযোগের প্রেক্ষিতে সোহাগের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মামলা হয়েছে। ছেলে পক্ষের কেউ আমার কাছে অভিযোগ করেনি।



মন্তব্য চালু নেই