মেইন ম্যেনু

ময়মনসিংহে বাসের ধাক্কায় একই পরিবারের ৪ জন নিহত

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে বাস ও প্রাইভেটকারের মুখোমুখি একই পরিবারের চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো দুইজন।
গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের গৌরীপুর উপজেলার গাঁও-রামগোপালপুর এলাকায় এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতেরা হলেন নেত্রকোণা জেলার দুর্গাপুর উপজেলার চন্ডিগর গ্রামের রফিকুজ্জামান (৪৫), স্ত্রী নাজমুন্নাহার শামীমা (৪০), ছেলে নাদিম (১৯ ), মেয়ে রওনক জাহান (১৩)। আহত হয়েছেন ছেলে নাহিদ (৩) , ও প্রাইভেটকার চালক (অজ্ঞাত) । আহতরা ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ময়মনসিংহ থেকে কিশোরগঞ্জগামী এমকে সুপার নামের একটি যাত্রীবাহী বাস বিপরীত দিক থেকে আসা ময়মনসিংহগামী একটি প্রাইভেটকারের (ঢাকা মেট্রো-গ ৩৯-৪০৮৬) মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনাস্থলেই রফিকুজ্জামানের স্ত্রী নাজমুন্নাহার শামীমা মারা যান। মুমুর্ষ অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর আরো তিনজন রফিকুজ্জামান (৪৫), ছেলে নাদিম (১৯ ), মেয়ে রওনক জাহান (১৩) মারা যান।

ঈদের ছুটিতে রফিকুজ্জামান তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নান্দাইল উপজেলার মধুপুরের শ্বশুর বাড়িতে রেড়াতে এসেছিলেন। শুক্রবার ফেরার পথে রামগোপালপুর ওই দুর্ঘটনা ঘটে।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: কামরুল ইসলাম জানান, বাসটি যাত্রী নিয়ে ময়মনসিংহ থেকে কিশোরগঞ্জ যাচ্ছিল। অন্যদিকে প্রাইভেটকারটি গৌরীপুর থেকে টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইল যাচ্ছিল। পথে দুটি যানের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে ঈশ্বরগঞ্জ থেকে দমকল বিভাগের কর্মীরা এসে হতাহতদের উদ্ভার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। নিহত ব্যক্তিদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বাসটিকে আটক করা হলেও চালক পালিয়ে গেছে। এব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।



মন্তব্য চালু নেই