শিরোনাম:

যশোরে গরু-হাঁস-মুরগির খাবারে কৃত্রিম রং মিশিয়ে হলুদ ও মরিচের গুঁড়া তৈরি!

যশোরে গরু-হাঁস-মুরগির খাবারে কৃত্রিম রং মিশিয়ে হলুদ ও মরিচের গুঁড়া তৈরির সময় অভিযান চালিয়ে দুই লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার (৯ মে) দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মিকাইল হোসেনের নেতৃত্বে যশোরের র‌্যাব-৬-এর সদস্যরা যশোর শহরের ঝুমঝুমপুর নীলগঞ্জ শ্মশানপাড়া এলাকার রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাস (৫৯) ও দিলীপ অধিকারীর (৫৮) মরিচ ও হলুদের গুঁড়া মিলে অভিযান পরিচালনা করে এ জরিমানা আদায় করেন।

অভিযুক্ত রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাস যশোর বেজপাড়া এলাকার মৃত চান্দপদ বিশ্বাসের ছেলে ও দিলীপ অধিকারী (৫৮) যশোর বারান্দী মোল্যাপাড়া এলাকার মৃত শ্রীতল চন্দ্র অধিকারীর ছেলে।

যশোর র‌্যাব-৬-এর কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার এম নাজিউর রহমান বলেন, গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারি নীলগঞ্জ শ্মশানপাড়া এলাকায় রং মিশিয়ে ভেজাল মরিচ ও হলুদের গুঁড়া তৈরি করছে। রোববার দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে দুপুর পৌনে ২টা পর্যন্ত যশোর ঝুমঝুমপুর নীলগঞ্জ শ্মশানপাড়া এলাকার রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাস ও দিলীপ অধিকারীর ওই মিলে অভিযান চালানো হয়।

এ সময় দেখা যায় গরু ও হাঁস-মুরগির খাবার মেশিনে গুঁড়া করে তাতে বিভিন্ন ধরনের রং ও কেমিক্যাল মিশিয়ে হলুদ ও মরিচের গুঁড়া তৈরি করছে। এসব অনৈতিক কাজের অপরাধে মিলের মালিক রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাস ও দিলীপ অধিকারীকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

তিনি আরও জানান, মিল থেকে ২০০ কেজি মাছের খাবার ও ৫ কেজি বিভিন্ন প্রকার রংও জব্দ করা হয়েছে। জরিমানার টাকা চালান মোতাবেক সরকারি কোষাগারে জমা করা হয়েছে এবং জব্দ মাছের খাবার ও ৫ কেজি বিভিন্ন প্রকার রং ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হয়েছে।