যশোরে প্রাইভেটকারে ট্রেনের ধাক্কা, ৪ আরোহী নিহত

যশোরের অভয়নগর উপজেলায় ট্রেনের সাথে প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষে শিশুসহ কারের চার যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দুই বছরের শিশুসহ অপর দুই আরোহী মারাত্মক আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার ভাঙ্গাগেটে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে খুলনাগামী মহানন্দা ট্রেন ভাঙ্গাগেট পার হওয়ার সময় ভৈরব ব্রিজের সংযোগ সড়ক দিয়ে আসা একটি প্রাইভেটকারের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এ সময় ট্রেনটি কারটিকে ঠেলতে ঠেলতে প্রায় ২০০ মিটার দূরে নিয়ে যায়। কারটি দুমড়ে মুচড়ে ট্রেনের ইঞ্জিনের সঙ্গে আটকে থাকে।

এ দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই নড়াইলের হিরোক ভূঁইয়া (৪৫), তার বোন শিল্পি বেগম (৪০) ও ইঞ্জিঃ হিরোক ভূঁইয়া ভাইয়ের মেয়ে সাত বছরের শিশু নিহত হন। আর আহত তিনজনকে উদ্ধার করে খুলনা নেওয়ার পথে আরোহী প্রয়াত হিরোকের বন্ধু আশরাফুল আলম (৪৫) মারা যান।
পরে আহত দুই বছরের শিশু কন্যা ও একজন মহিলাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সূত্রে জানা যায়, আহত ব্যক্তিরা নিহত হিরোক ভূঁইয়ার সন্তান (২) ও স্ত্রী (৩৫) যারা শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত চিকিৎসাধীন ছিলেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ট্রেনের সাথে প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই এক শিশুসহ তিনজন নিহত হন এবং খুলনা হাসপাতালে নেওয়ার সময় আশরাফুল আলম মারা যান। এ ঘটনায় অপর দুই যাত্রী আহত হয়েছেন।
দুর্ঘটনায় নিহত ও আহতদের সবার বাড়ি নড়াইল জেলায়।

নিহত হিরোক ভূঁইয়ার বোনের মেয়ে (ভাগ্নি) মীম খানম জানান, মামা পরিবারের পাঁচ সদস্য এবং এক বন্ধুকে নিয়ে ডাক্তার দেখাতে শুক্রবার বেলা পৌনে চারটার দিকে নড়াইল থেকে নিজের প্রাইভেটকার যোগে খুলনার উদ্দেশ্যে রওনা হন। পরে সন্ধ্যায় তিনি শুনতে পান নওয়াপাড়া রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের ধাক্কায় মামা, খালা, মামাতো ভাই এবং মামার এক বন্ধু মারা গেছেন। এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় নড়াইলে তার পরিবার ও পরিজনের মধ্যে শোক বিরাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নওয়াপাড়া রেলওয়ে স্টেশনের মাস্টার মো. মহসীন রেজা জানান, ভৈরব নদের ওপার থেকে একটি প্রাইভেটকার ভৈরব ব্রিজ পার হয়ে যশোর-খুলনা মহাসড়কে উঠছিল। এ সময় ভাঙ্গাগেট এলাকার রেললাইন পার হওয়ার সময় খুলনাগামী মহানন্দা এক্সপ্রেসের সামনে পড়লে মুহূর্তের মধ্যেই প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে ২০০ ফুট দূরে গিয়ে ছিটকে পড়ে।

এ সময় প্রাইভেটকারে থাকা ৬ জনের মধ্যে প্রাইভেটকারের চালকসহ ২ জন ঘটনাস্থলেই নিহত হন এবং পাঁচ বছরের একটি শিশু অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে মারা যায়। অপর একজন খুলনা হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান।

দুর্ঘটনায় আহত অপর দুজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। খবর পেয়ে থানা ও রেলওয়ে পুলিশ এবং নওয়াপাড়া ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে। দুর্ঘটনার পর প্রায় এক ঘণ্টা ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।



মন্তব্য চালু নেই