যশোরে শিশু ছাত্র বলাৎকারের অভিযোগ শিক্ষক আটক

যশোরের ঝিকরগাছার পল্লীতে ৯ বছর বয়সী শিশু ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে ইয়াকুব আলী (৩৫) নামের এক মাদ্রাসা শিক্ষককে আটক করে শ্রীঘরে পাঠিয়েছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কুমরী হাফিজিয়া মাদ্রাসায়।

আটক ইয়াকুব আলী শার্শা উপজেলার গোগা গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে।

জানা যায়, ঝিকরগাছা উপজেলার শংকরপুর ইউনিয়নের কুমরী হাফিজিয়া মাদ্রাসার ঔ শিক্ষক গত ২ জানুয়ারি দুপুরে মাদ্রাসার ৯ বছর বয়সী এক শিশু ছাত্রকে নিজের থাকার ঘরে ডেকে নিয়ে বলাৎকার করে। পরে তাকে ভয় দেখিয়ে বিষয়টি কাউকে জানাতে নিষেধ করে।

পরে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী বিষয়টি মঙ্গলবার তার পরিবারকে জানায়। এসময় শিশুটির অভিভাবক মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদকে অবহিত করলে মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদ ও এলাকাবাসী লম্পট শিক্ষককে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করে।

কুমরী হাফিজিয়া মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের জানান, মাদ্ররাসা পরিচালনা পর্ষদ ও এলাকাবাসীর সহযোগীতায় ওই লম্পট শিক্ষককে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করা হয়েছে। এ বিষয়টি নিউজ না করার অনুরোধ করে বলেন, নিউজ হলে আমাদের মাদ্রাসার সুনাম নষ্ট সহ মাদ্রাসার অনুদান হয়তো বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ রিপন বালা বলেন, অপরাধী শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।



মন্তব্য চালু নেই