শিরোনাম:

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায়

যুবকের ধর্ষণে ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা যুবতী

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণের ফলে ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে এক যুবতী (১৮)। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে ওই যুবতীর মা বাদী হয়ে ইমরান হোসেন নামের এক যুবককে একমাত্র আসামী করে কলাপাড়া থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রায় দুই বছর আগে ইসলামী শরিয়া মতে পারিবারিকভাবে এক যুবকের সাথে ওই যুবতীর বিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু দাম্পত্য কলহের জেরে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায় এক বছর আগে। এর পর থেকেই ওই যুবতী তার মায়ের বাড়ি বালিয়াতলী ইউনিয়নের কোম্পানিপাড়া গ্রামে বসবাস করে আসছিলেন। এরই মাঝে পার্শ্ববর্তী লালুয়া ইউপির শনিবাড়িয়া বাজারের ইমরানের সঙ্গে তাদের পরিচয় হয়। এ সুবাদে ইমরান কারণে অকারণে প্রায় আট মাস যাবত তাদের বাড়িতে আসা যাওয়া করতো এবং সুযোগ বুঝে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে ওই যুবতীকে একাধিবার ধর্ষন করে। এতে ওই যুবতী ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পরে।
বিষয়টি ওই যুবতীর মা স্থানীয় আলআমিন, হোসেন খান, স্বপন গাজী ও বাবুল খলিফাসহ আরো বেশ কয়েক জনকে জানায়। কিন্তু তারা শালিস মিমাংসার কথা বলে ওই যুবতী ও তার মাকে থানাসহ কোথাও যেতে দেয়নি বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

কলাপাড়া থানার ওসি তদন্ত আসাদুর রহমান জানান, ওই যুবতীকে ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠনো হয়েছে। এছাড়া আসামিকে গ্রেফতারে সর্বোচ্চ চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।