শিরোনাম:

রানিয়া আল ইয়াসিন: মুসলিম সুন্দরী রানিদের মধ্যে অন্যতম

রানিয়া আল ইয়াসিন। বর্তমানে জর্ডানের রানি তিনি। বিশ্বের মুসলিম সুন্দরী নারীদের মধ্যে তিনি অন্যতম। জর্ডানের রাজা আবদুল্লাহ ইবনে হুসাইনের সঙ্গে বিয়ের পর থেকে তিনিই জর্ডানের রানি। এছাড়া সবচেয়ে সুন্দর সাম্রাজ্য এবং দেশের সবচেয়ে প্রিয় প্রথম লেডি হিসেবে রানি ইয়াসিনকেই ধরা হয়।

রানি ইয়াসিন ১৯৭০ সালের ৩১ আগস্ট কুয়েতে জন্মগ্রহণ করলেও তার বাবা-মা ছিলেন ফিলিস্তিনি। কুয়েতেই তার শৈশব কেটেছে। সেখানেই তিনি তার প্রাথমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের পড়া শেষ করেন। এরপরে তিনি ১৯৯১ সালে আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয় অব কায়রো থেকে ব্যবসায় প্রশাসনে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।

এরপরে রানিয়া ব্যাংকিং ও ইনফরমেশন টেকনোলোজিতে মাঠ পর্যায়ে কাজ করতে শুরু করলে সেখানেই দেখা হয় রাজা আব্দুল্লাহের সঙ্গে। সেখান থেকেই তাদের পরিচয়, এরপর প্রণয়। ১৯৯৩ সালের ১০ জুন রাজা আবদুল্লাহ ইবনে হুসাইনের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। এরপর একে একে তার চারটি সন্তান জন্ম হয়। এরা হলেন- প্রিন্স হুসেন, প্রিন্স হাশেম, রাজকুমারী ইমান এবং রাজকুমারী সালমা।

রানিয়া বিশ্ব্যব্যাপী শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কমিউনিটি ক্ষমতায়ন, যুব, ক্রস-সাংস্কৃতিক সংলাপ এবং মাইক্রো-ফাইন্যান্স সম্পর্কিত সমর্থনমূলক কাজের জন্য পরিচিত হয়ে উঠেছেন। বহু দেশ থেকে তিনি সমাজসেবা ও উন্নয়নমূলক কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ পুরস্কার এবং সম্মানিত ডিগ্রী লাভ করেছেন।

যেখানে রাজকীয় পরিবার মানেই গোপনীয়তার বেড়াজাল, সেখানে রানির রয়েছে নিজস্ব ওয়েবসাইট, ইউটিউব চ্যানেল।

এছাড়া সোশ্যাল মিডিয়াতেও রয়েছে তার সব রকমের চর্চা। সেখানে তিনি সবসময় সরব থাকেন। নিজের রাজকীয় জীবনের গণ্ডি পার করে নিজেকে মেলে ধরেন নিজস্ব সত্ত্বায়।



মন্তব্য চালু নেই