প্রধান ম্যেনু

রোহিঙ্গা হত্যা বন্ধে আন্তর্জাতিক আদালতের আদেশ

রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধ এবং তাদের সুরক্ষায় মিয়ানমারকে সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নেয়ার আদেশ দিয়েছেন আন্তর্জাতিক বিচার আদালত (আইসিজে)।

এ বিষয়ে ৪ মাসের মধ্যে দেশটিকে অগ্রগতি জানাতে বলা হয়েছে। রাখাইনে রোহিঙ্গা নির্যাতন গণহত্যার শামিল বলেও পর্যবেক্ষণ দেন আদালত। দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী ক্ষমতার অপব্যবহার করে মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে উল্লেখ কোরে আদালত বলেন, মিয়ানমার সরকার এর দায় এড়াতে পারে না।

রাখাইনে মিয়ানমার সরকার ও নিরাপত্তা বাহিনীর দায়িত্বে অবহেলার কারণে গণহত্যা হয়েছে বলে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতের রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে। রায়ে বলা হয়, মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ রোহিঙ্গাদের জানমালের নিরাপত্তার ব্যবস্থা তো করেইনি, বরং ক্ষমতার অপব্যবহার করেছে।

বৃহস্পতিবার নেদারল্যান্ডসের হেগে রায় পড়া শুরু হয়। গণহত্যাসহ সব ধরনের নিপীড়নের হাত থেকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে সুরক্ষায় অন্তর্বর্তী ব্যবস্থার বিষয়ে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতের আদেশ ঘোষিত হয়। আদালতের প্রেসিডেন্ট বিচারপতি আবদুলকোয়াই আহমেদ ইউসুফ আনুষ্ঠানিকভাবে সব অভিযোগ তুলে ধরেন।

গেল ডিসেম্বরের ১০ থেকে ১২ তারিখ-তিনদিন এ আবেদনের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। এতে উভয় পক্ষে আন্তর্জাতিক আইনের শীর্ষস্থানীয় বিশেষজ্ঞরা অংশ নেন। আন্তর্জাতিক আদালতের ১৫ জন স্থায়ী বিচারপতির সঙ্গে বিরোধীয় দুই রাষ্ট্রের মনোনীত দুজন অ্যাডহক বিচারপতি মামলার শুনানি গ্রহণ করেন।



মন্তব্য চালু নেই