মেইন ম্যেনু

শম্ভু এমপির চেম্বারে মিন্নির আইনজীবীর বৈঠক নিয়ে তোলপাড়

বরগুনার বহুল আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলা নাটকীয় মোড় নিচ্ছে। এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও প্রধান সাক্ষী নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে গ্রেফতারের পর থেকেই এ নাটকীয়তা শুরু। রোববার মিন্নির পক্ষে জামিন আবেদনের আগের রাতে তার আইনজীবী স্থানীয় সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর চেম্বারে গিয়ে তার সঙ্গে বৈঠক করেন। এ সময় এমপি শম্ভুর ছেলে সুনাম দেবনাথও ছিলেন। রুদ্ধদ্বার এ বৈঠক নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে ব্যাপক কানাঘুষা চলছে।

রোববার সকালে বরগুনার নিম্ন আদালতে আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন আবেদন করেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল বারি আসলাম। এরপর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন বাদি এবং আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেদেন আদালত।

এদিকে, শনিবার রাতে বরগুনার সদর রোডের ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর ব্যক্তিগত ল চেম্বারের পেছনের একটি কক্ষে মিন্নির আইনজীবী মাহবুবুল বারী আসলামকে দেখা যায়। এ সময় তার সঙ্গে বরগুনা বারের সভাপতি আবদুর রহমান নান্টুও ছিলেন।

এদিকে মিন্নির পরিবারের দাবি, তাকে (মিন্নি) ষড়যন্ত্রমূলকভাবে এ মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। প্রভাবশালীদের চাপে রয়েছে গোটা পরিবার।

এর আগে গত শুক্রবার মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর গণমাধ্যমে দেওয়া এক বক্তব্যে বলেছিলেন, আমার মেয়ে জীবন বাজি রেখে তার স্বামীকে রক্ষা করতে গেছে। এটাই তার অপরাধ? এ সবকিছুই শম্ভু বাবুর (স্থানীয় সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু) খেলা। তার ছেলে সুনাম দেবনাথকে সেভ করার জন্য আমার মেয়েকে বলি দেওয়া হচ্ছে।



মন্তব্য চালু নেই