প্রধান ম্যেনু

শূন্য রানেই ৬ উইকেট!

দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় ক্রীড়া আয়োজন এসএ গেমসে ক্রিকেট ইভেন্ট শুরু হল আজ সোমবার। ক্রিকেটের প্রথম দিনেই হইচই ফেলে দিয়েছেন নেপালের এক নারী ক্রিকেটার। নাম অঞ্জলি চাঁদ। প্রতিপক্ষের সামনে তিনি আজ আবির্ভুত হন ঘোর অমানিশা হয়ে। বিনা রানে ছয় উইকেট তুলে নিয়ে মালদ্বীপকে একাই বিধ্বস্ত করেছেন ২৪ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

যাতে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সেরা বোলিং ফিগারের বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন অঞ্জলি চাঁদ। নেপালে চলমান এসএ গেমসে নারী ক্রিকেটে সোমবার মালদ্বীপের বিপক্ষে কোন রান খরচ না করেই ৬ উইকেট শিকার করে এ বিশ্ব রেকর্ড গড়েন অঞ্জলি। তার রেকর্ড গড়া বোলিংয়ে মালদ্বীপকে ১০ উইকেটে হারিয়েছে স্বাগতিক নেপাল।

নারী ক্রিকেটের প্রথম ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন মালদ্বীপের অধিনায়ক জুনা মারিয়াম। তবে ব্যাট হাতে নেমেই স্বাগতিকদের বোলিং তোপে পড়ে ১০ দশমিক ১ ওভারে মাত্র ১৬ রানে গুটিয়ে যায় মালদ্বীপের নারীরা। ইনিংসের সপ্তম ওভারে বল হাতে আক্রমণে আসা অঞ্জলি কোন রান খরচ না করে ৬ উইকেট শিকার করে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সেরা বোলিং ফিগারের রেকর্ড গড়েন।

লাতসা হালিমাথ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে নিজের প্রথম ওভারে মালদ্বীপ অধিনায়ককে শূন্য রানে আউট করেন ২৪ বছর বয়সী অঞ্জলি। দুই বল পরেই নিজের দ্বিতীয় উইকেট তুলে নেন তিনি।

আট নম্বরে ব্যাট হাতে নামা শাফা সালিমও রানের খাতা খোলার আগেই শিকার হন অঞ্জলির। এরপর ফাসাল ইব্রাহিম, কিনাথ ইসমাইল এবং শামা আলীও আউটহন কোন রান না করেই।

জয়ের জন্য ১৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে কাজল শ্রেষ্ঠা টানা তিন বাউন্ডারি হাঁকালে মাত্র পাঁচ বল খেলেই ম্যাচ জিতে নেয় নেপাল।

নারী আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এর আগে সেরা বোলিং ফিগারের মালিক ছিলেন মালদ্বীপের মান এলিসা। চলতি বছর চীনের বিপক্ষে একটি ম্যাচে তিন রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট শিকার করেছিলেন এলিসা।

অন্যদিকে, আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে পুরুষ বিভাগে সেরা বোলিং ফিগারের মালিক ভারতের দিপক চাহার। গত মাসে নিজ মাঠে বাংলাদেশের বিপক্ষে সাত রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট শিকার করেন এই পেসার।



মন্তব্য চালু নেই