শিরোনাম:

শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমেও নেয়া যাবে করোনার টিকা!

বিশ্বে প্রথমবার শ্বাস-প্রশ্বাসে নেওয়ার করোনা ভ্যাকসিন প্রদর্শন করলো চীন।

স্থানীয় সময় শুক্রবার (১২ নভেম্বর) দেশটির দক্ষিণাঞ্চলের হাইনান প্রদেশে আয়োজিত ৫ম আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রদর্শনীতে এর কার্যকারিতা সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটি করোনার অন্য ভ্যাকসিনের মতই দেহে অ্যান্টিবডি তৈরিতে সাহায্য করবে।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়ে বিশ্বজুড়ে চলছে গবেষণা। ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে প্রয়োগ করার ভ্যাকসিন আবিষ্কৃত হয়েছে আগেই। সম্প্রতি বাজারে এসেছে করোনার ট্যাবলেট। এবার চীনের একদল গবেষক, চীনা বায়োটেক কোম্পানি ক্যানসিনো বায়োলজিকসের যৌথ উদ্যোগে আবিষ্কার করেছে শ্বাস প্রশ্বাসের সঙ্গে গ্রহণ করার ভ্যাকসিন।

স্থানীয় সময় শুক্রবার চীনের দক্ষিণাঞ্চলীয় হাইনান প্রদেশে আয়োজিত ৫ম আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রদর্শনীতে প্রথমবারের মতো দেখানো হয় ভ্যাকসিনটি। এ সময় প্রদর্শনীতে আগতদের অনেকেই এটি গ্রহণ করেন।

ক্যানসিনো বায়োলজিকস জানিয়েছে, ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ভ্যাকসিনটির ক্লিনিকাল ট্রায়াল শুরু হয়। সবশেষ দ্বিতীয় পর্যায়ের ক্লিনিকাল ট্রায়ালে আশানুরূপ ফলাফল পাওয়া গেছে। এটি করোনার অন্যান্য ভ্যাকসিনের মতোই দেহে অ্যান্টিবডি তৈরিতে সাহায্য করবে, এছাড়া বুস্টার ডোজ হিসেবেও এটিকে ব্যবহার করা যাবে। আর ইনহেলারের মতো গ্রহণের সুবিধা থাকায় যে কোনো বয়সীরা এটিকে সহজেই ব্যবহার করতে পারবেন।

বর্তমানে সিনোফার্ম আর সিনোভ্যাক নামে করোনার দুটি চীনা ভ্যাকসিন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ব্যবহৃত হচ্ছে। আর শ্বাস প্রশ্বাসের সঙ্গে গ্রহণ করার নতুন আবিষ্কৃত ভ্যাকসিনটি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।