সন্ধ্যার মধ্যেই জানা যেতে পারে খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়ার সিদ্ধান্ত

চিকিৎসার জন্য বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশ নেয়া সংক্রান্ত জটিলতা কাটতে যাচ্ছে শুক্রবার (০৭ মে) সন্ধ্যার মধ্যেই। সিঙ্গাপুর হয়ে লন্ডনে যেতে পারেন তিনি। সরকারের অনুমোদনের পরই শুরু হবে এই প্রক্রিয়া।

এর আগে বেগম জিয়াকে বিদেশ নিতে চেয়ে বুধবার (০৬ মে) রাত আটটায় আবেদন করে তার পরিবার। এরপর কেটে গেছে ৪২ ঘণ্টা। এখনো সরকারের গ্রিন সিগন্যাল মেলেনি।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় আবেদনের কপি হাতে পাওয়ার পর আইনমন্ত্রী জানিয়েছেন, খুব শিগগিরই এ বিষয়ে তিনি মতামত দিবেন। বিভিন্নসূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যার মধ্যেই কেটে যাবে সব জটিলতা।

বিএনপিও তাকিয়ে সরকারের দিকে। আবেদনে লন্ডনে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি উল্লেখ না করলেও সে দেশকেই অগ্রাধিকার দিচ্ছে তার পরিরবার।
এছাড়া সিঙ্গাপুর হয়ে সৌদি আরব যাওয়ার কথাও শোনা যাচ্ছে। দেশগুলোর দূতাবাস, হাইকমিশনের সঙ্গেও যোগাযোগ করছেন তারা।
বেগম জিয়ার নবায়নকৃত পাসপোর্ট ও সরকারের অনুমোদন পেলেই এ বিষয়ে আরো তৎপর হবে দল।

বেগম জিয়ার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘সময় ক্ষেপণ করে তার জীবনের ঝুঁকি না বাড়িয়ে বিদেশে যেতে দেয়া উচিৎ। এবং এখানে আইনগত কোনো বাধা নেই।’

এদিকে চিকিৎসাধীন বেগম জিয়ার অবস্থা এখনও স্থিতিশীল রয়েছে বলে জানিয়েছেন এভারকেয়ার হাসপাতালের একজন দায়িত্বশীল চিকিৎসক।
তিনি জানান, অক্সিজেন, এন্টিবায়োটিক ও ইনসুলিন দেয়া হচ্ছে বিএনপি নেত্রীকে।



মন্তব্য চালু নেই