শিরোনাম:

সরকার পতনের জন্য কাজ করছি: রেজা কিবরিয়া

গণ অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক ড. রেজা কিবরিয়া বলেছেন, বর্তমান সরকার সবখানেই ষড়যন্ত্র করে। কিন্তু আমরা প্রকাশ্যে বলছি, আমরা এ সরকারের পতনের জন্য কাজ করছি। আগে ক্ষমতাচ্যুত ছিল ২৫ বছর। এবারের পর তারা ১২৫ বছরের মধ্যে ক্ষমতায় আসতে পারবে না।

শুক্রবার (১২ আগস্ট) সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সারাদেশে লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনাসহ পাঁচদফা দাবিতে গণপরিষদ আয়োজিত সমাবেশে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগকে একবার ভোট দেওয়া যায়। বারবার ভুল করা যাবে না। আমরা একটি শ্বেতপত্র দেবো যে, তারা কীভাবে কত মানুষকে গুম, খুন হত্যা ও নির্যাতন করেছে। তারা এখনো ২ হাজার আলেমকে জেলখানায় নির্যাতন করছে। আমরা এমন একটা দেশ গঠন করবো যেটিকে নিয়ে সবাই গর্ব করবে। যেখানে কোনো বৈষম্য থাকবে না।

রেজা কিবরিয়া বলেন, এ সরকারকে রাখলে শুধু দেশের মানুষ বিপদে পড়বে। আর সময় নেই এ সরকারকে সরাতে হবে। আপনারা যদি ভাবেন আরও ছয় মাস, এক বছর রাখলে ক্ষতি কী? অনেক বড় বিপদ হবে। ১৪ বছর ধরে অদক্ষতা ও দুর্নীতি করে দেশের অনেক ক্ষতি করেছে। দেশ শ্রীলঙ্কার মতো অবস্থা হতে আর বেশিদিন বাকি নেই। সে রকম যদি হয়ে যায় তাহলে এ অবস্থা থেকে উত্তরণে ১৫ থেকে ২০ বছর সময় লাগবে। তারা আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) ঋণ নিয়ে মিথ্যা কথা বলে, অবশ্য মিথ্যা কথা বলা মন্ত্রীদের অভ্যাস।

তিনি আরও বলেন, সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত বলেছেন— সরকার জানতে চায়নি কারা টাকা পাচার করেছে। আসলে নামগুলো প্রকাশ পেলে তারাই বিপদে পড়বে। এ সরকার দেশটাকে কঠিন বিপদে ফেলে দিয়েছে। আমি মনেকরি, কয়েক মাসের মধ্যে সরকার পদত্যাগ করে সরে না গেলে আমরা কঠিন বিপদ থেকে বাঁচতে পারবো না।

সমাবেশে নুরুল হক নুরসহ গণ অধিকার পরিষদ ও তাদের অঙ্গ সংগঠনের নেতারা বক্তব্য দেন।