শিরোনাম:

‘সর্বনাশা খেলা’ থেকে বিরত থাকুন, শিক্ষামন্ত্রীকে আইডিইবি নেতারা

ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সের মেয়াদ চার বছর থেকে কমিয়ে তিন বছর করার প্রস্তাব দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ‘অভিভাবকদের খরচ কমাতে’ এ কোর্সের মেয়াদ এক বছর কমিয়ে আনার কথা জানিয়েছেন মন্ত্রী।

তবে শিক্ষামন্ত্রীর এমন প্রস্তাবে ক্ষোভ জানিয়েছেন প্রকৌশলীরা। তাদের দাবি, আর্থিক অসঙ্গতির অজুহাতে কোর্সের মেয়াদকাল কমানো হলে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের অবমূল্যায়ন করা হবে।

কোর্সের মেয়াদ কমাতে শিক্ষামন্ত্রী যে প্রস্তাব করেছেন, তা ‘সর্বনাশা খেলা’ উল্লেখ করে এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ চেয়েছেন ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারস বাংলাদেশের (আইডিইবি) নেতারা।

শুক্রবার (১২ আগস্ট) সন্ধ্যায় রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারস মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় সংগঠনের নেতারা এমন কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিকবিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন। ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি আলোচনা সভায় একক বক্তা হিসেবে বক্তৃতা করেন।

এসময় প্রধান অতিথি মসিউর রহমানকে উদ্দেশ করে আইডিইবির সাধারণ সম্পাদক মো. শামসুর রহমান বলেন, ‘অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় আজ এক অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী চার বছরের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সকে তিন বছরে কমিয়ে আনার প্রস্তাব তুলে ধরেছেন। তিনি যুক্তি দিয়েছেন, কোর্স তিন বছরে নামিয়ে আনলে অভিভাবকদের এক বছরের টাকা সাশ্রয় হবে। আমরা মন্ত্রীর কাছে জানতে চাই, অনার্স কোর্সেও লাখ লাখ শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছেন, তাদের অভিভাবকদের কী টাকার মূল্য নেই।

তিনি বলেন, চার বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চালু করেছেন। সেই কোর্সকে শিক্ষামন্ত্রী তিন বছরে নামিয়ে এনে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের অবমূল্যায়ন করতে চাইছেন। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আপনার (মসিউর রহমান) মাধ্যমে আমরা এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাই। আপনি প্রধানমন্ত্রীর মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রীকে এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে নিষেধ করেন। তা না হলে পাঁচ লাখ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার, সাড়ে চার লাখ পলিটেকনিকের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা রাজপথে নেমে যাবে।’

শামসুর রহমান আরও বলেন, ডা. দীপু মনি কী চান? জাতীয় নির্বাচনের আগে ৯-১০ লাখ মানুষ রাজপথে নেমে আসুক, সেটা চান তিনি? সেই লক্ষ্যেই কি দীপু মনি এ বক্তব্য দিয়েছেন। তা নিয়ে আমার সন্দেহ আছে। ওনি কি রাজপথে নামার জন্য উসকানি দিচ্ছেন কি না, সেটা আমরা বুঝতে পারছি না। এ সর্বনাশা খেলা থেকে শিক্ষামন্ত্রীকে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়া হোক।

আইডিইবির সাধারণ সম্পাদক বলেন, এদেশে পলিটেকনিক শিক্ষাব্যবস্থা চার বছর মেয়াদি। ২০০০ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের মর্যাদা বৃদ্ধির জন্য তিন বছর মেয়াদি কোর্সটিকে চার বছরে উন্নীত করেন। হঠাৎ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কোর্সটি তিন বছরে নামিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারা কমিটি গঠন করেছে। শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়াররা এর বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন।

জবাবে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান বলেন, ‘শিক্ষামন্ত্রী এ বিষয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত। ওনি যেটা বলেছেন, আমার বিশ্বাস সেটা ওনি বিচার-বিবেচনা করেই বলেছেন। আপনাদের কাছে হয়তো সেটা গ্রহণযোগ্য মনে হয়নি। আপনাদের বক্তব্য লিখিত আকারে দিলে, আমি প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টিতে আনার চেষ্টা করবো।’

আলোচনা সভায় বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করে মসিউর রহমান বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে আমি তিন বছর কাজ করেছি। ওনার একান্ত সচিব হিসেবে কাজ করেছি। মানবতা ও সব মানুষের প্রতি সম্মানবোধ বঙ্গবন্ধু আচরণের সবচেয়ে লক্ষ্যণীয় দিক।’

আইডিইবির সভাপতি এ কে এম এ হামিদ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এতে ঢাকা ও ঢাকার বাইরের আইডিইবি সদস্যরা ভাচুর্য়ালি অংশ নেন।