সাংবাদিক পেটানো সেই আ.লীগ নেতার ছেলে গ্রেপ্তার

চাল চুরির অভিযোগ করায় ভোলায় সাংবাদিক সাগর চৌধুরীকে পেটানো বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বড় মানিকা ইউপি চেয়ারম্যান জসিম হায়দারের ছেলে নাবিল হায়দারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার দুপুর ১টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (লালমোহন সার্কেল) মো. রাসেলুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে আজ সকালে বাদল হায়দারকে আসামি করে বোরহানউদ্দিন থানার মামলা করেন স্থানীয় অনলাইন পোর্টাল ডব্লিউ ৩৬০ ডিগ্রির সম্পাদক ও প্রকাশক সাগর চৌধুরী। সেই মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় নাবিলকে।

জানা গেছে, করোনাভাইরাসের কারণে ঘরে থাকার সময়ে জেলেদের নামে বরাদ্দকৃত চাল রাতের আঁধারে চুরি করে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বড় মানিকা ইউপি চেয়ারম্যান জসিম হায়দারের ছেলে নাবিলের বিরুদ্ধে। বিশ্বস্ত সূত্রে ঘটনাটি নিশ্চিত হয়ে এর তথ্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সাংবাদিক সাগর চৌধুরী অবহিত করেন। এ খবর পেয়ে ক্ষিপ্ত হন নাবিল। পরে ভোলার বোরহানউদ্দিনে সাংবাদিক সাগর চৌধুরীকে ধরে এনে মোবাইল চোর ও ছিনতাইয়ের অপবাদ দিয়ে মারধর করেন তিনি।

সাংবাদিক সাগর চৌধুরী বলেন, ‌’মঙ্গলবার ‌সকাল ৬টায় নাবিল আমাকে ফোন করে বলে, আপনার সঙ্গে জরুরি কথা আছে একটু আসেন। তখন আমি বলি, এত সকালে আমি কীভাবে আসব। তরপরও আমি সেখানে গেলে, সিনেমা হলের দোতলায় আমাকে ডেকে নেয় সে। আমাকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করা হয়। তখন আমি দোতলা থেকে নিচের দিকে নেমে আসতে চাই। তখন সে পেছন থেকে আমার কলার চেপে ধরে এবং আঘাত করে। আমার চোখে আঘাত করে চোখ নষ্ট করে দেওয়ার জন্য। মাথার অনেক জায়গায় আঘাত করে। মাথাটা ফুলে গেছে। আমাকে মেরে ফেলার জন্য দুহাত দিয়ে গলা চেপে ধরে। এ ছাড়া শরীরের অনেক জায়গায় আঘাত করে সে।’



মন্তব্য চালু নেই