সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে নির্মাণ শ্রমিক গ্রেপ্তার

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে ৭ম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে নির্মাণ শ্রমিক মাহাফিজুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার সকালে দেবহাটার কুলিয়া দুর্গাপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অভিযুক্ত ওই গ্রামের মৃত মেনা মোল্যার ছেলে।

এর আগে স্কুল ছাত্রীর পিতা সোমবার রাতে কালিগঞ্জ থানায় মাহাফিজুল ইসলামকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা করেন।

কালিগঞ্জ থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন জানান, নির্মাণ শ্রমিক মাহাফিজুলের খালার বাড়ি কালিগঞ্জের বসন্তপুর গ্রামে। খালার বাড়িতে মাঝে মাঝে বেড়াতে যাওয়ার সুবাদে মাহাফিজুলের কু-নজর পড়ে স্কুল ছাত্রীর ওপর। গতকাল সকালে খালার বাড়ির পাশে একটি বাগানে স্কুল ছাত্রীকে একা পেয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠে মাহাফিজুলের বিরুদ্ধে। স্থানীয়রা টের পেলে ধর্ষক পালিয়ে তার গ্রামের বাড়িতে চলে আসে। রাতে স্কুল ছাত্রীর পিতা বাদি হয়ে মাহাফিজুলকে আসামী করে থানায় মামলা করে। সকালে কুলিয়া দুর্গাপুরে আসামীর গ্রামের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে মাহাফিজুলকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ওসি আরো জানান, ধর্ষিতা ছাত্রীকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে মেডিকেল টেস্ট করানোর জন্য ভর্তি করা হয়েছে। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তার জবানবন্দী রেকর্ড করার প্রক্রিয়া চলছে এবং আসামী মাহাফিজুল ইসলামকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।



মন্তব্য চালু নেই