সাতক্ষীরায় ট্রলার ডুবি: আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার, এখনো নিখোঁজ এক

সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার কুড়িকাহুনিয়ায় কপোতাক্ষ নদে ট্রলার ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ তিন শ্রমিকের মধ্যে আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে নৌবাহিনীর সদস্যরা। উদ্ধারকৃত মরদেহটি উপজেলার বকচর গ্রামের ফজলুর রহমান সানার পুত্র শফিকুল ইসলামের।

শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুর দেড়টার দিকে কপোতাক্ষ নদে ভাসমান অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করেন নৌ-সদস্যরা। এর আগে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে একই গ্রামের বাবর আলী (৪৫) নামে এক শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার হয়। এনিয়ে নিখোঁজ তিনজনের মধ্যে দুজনের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে।

এখনো পুইজালা গ্রামের মানিক মোড়লের পুত্র আজিজুর রহমান নিখোঁজ রয়েছেন।

সাতক্ষীরা ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক তারেক হাসান ভুঁইয়া জানান, নিখোঁজ শ্রমিকদের উদ্ধারে চতুর্থ দিনের মতো অভিযান চলছে। শফিকুল ইসলাম নামের আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। বাকী একজনকে উদ্ধারের প্রচেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৬টার দিকে বাঁধ নির্মাণের কাজে যাওয়ার সময় কুড়িকাহুনিয়ায় ঘূর্ণিঝড় আম্পানে কপোতাক্ষ নদের বেড়িবাঁধ ভেঙে সৃষ্ট খালে ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে। ট্রলারটিতে থাকা ১২ জন শ্রমিকের মধ্যে নয়জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও তিনজন নিখোঁজ ছিল। তার মধ্যে দুজনের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে।

প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বৃহস্পতিবার বাবর আলীর এবং শুক্রবার শফিকুল ইসলামের মরদেহ কপোতাক্ষ নদ থেকে উদ্ধার হয়েছে। এখনো আজিজুর রহমান নামক এক শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছেন। তাকে উদ্ধারে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চলছে।



মন্তব্য চালু নেই