সাতক্ষীরায় দেড় কোটি টাকার অনুমোনহীন চাল উদ্ধার করলো এনএসআই

সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে কম রাজস্ব মূল্যের নন বাসমতি চালের ঘোষণা দিয়ে বাংলাদেশে অনুমোদনহীন ৩ (‌তিন) ট্রাক ভারতীয় উচ্চমূল্যের শ্যামা চাল উদ্ধার করেছে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা (এনএসআই) এর ভোমরা স্থলবন্দরের কর্মকর্তারা।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৪ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যায় জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা (এনএসআই) ভোমরা শাখার জুনিয়র ফিল্ড অফিসার হাবিবুর রহমান তালুকদারের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে ভোমরাস্থল বন্দর ইয়ার্ড থেকে তিনটি ট্রাক ভর্তি অননুমোদিত ভারতীয় এসব চাল আটক করা হয়।

জানা গেছে, ১ ফেব্রুয়ারী ওই ৩টি ট্রাকে ভারতীয় উচ্চ মূল্যের শ্যামা চাল ভোমরাস্থল বন্দর ইয়ার্ডে প্রবেশ করে। কিন্তু ওই চালের অনুমোদন বাংলাদেশে না থাকায় সেখানেই ছিলো। আমদানীকারক প্রতিষ্ঠান সাতক্ষীরার সুলতানপুর বড়বাজারে পলাশ ট্রেডার্স এবং সিএন্ডএফ এজেন্ট ভোমরার মামুন ট্রেডার্স মোটা চালের অনুমোদন নিয়ে চালগুলো আমদানি করে। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভোমরা স্থলবন্দরে দায়িত্বরত এনএসআই অফিস এবং কাস্টমস অফিস যৌথ অভিযান পরিচালনা করে তিনটি ভারতীয় ট্রাকে আসা (ট্রাক গুলোর নং (WB 23B-0355, WB 65B-4716, WB 23B-6631) বস্তাভর্তি চাল আটক করে।

অভিযানে ট্রাক ৩টিতে বাংলাদেশে অননুমোদিত ১৪০৭ বস্তা (৮৪৪২০ কেজি) শ্যামা চাল এবং ৪৩ বস্তা (২৫৮০ কেজি) সিদ্ধ চাল উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় দেড় কোটি টাকা। বর্তমানে ভোমরা স্থলবন্দর গোডাউন নং-১ এ সিলগালা অবস্থায় বস্তাভর্তি চাল সংরক্ষিত রয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা, ভোমরার জু‌নিয়র ফিল্ড অ‌ফিসার মোঃ হা‌বিবুর রহমান তালুকদার।

এ বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে বলে ভোমরা স্থলবন্দর কাস্টমস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন।
পরীক্ষা করে ডকুমেন্টগুলো দেখে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে বলে ভোমরা স্থলবন্দর কাস্টমস সহকারী কমিশনার আমির মামুন জানিয়েছেন।



মন্তব্য চালু নেই