সাভারে সুরক্ষাবিধি ছাড়া কাজ করানোর প্রতিবাদে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধসহ আহত ১০

নিজস্ব প্রতিবেদক : সাভারে করোনা সংক্রমণ ঝুঁকির মাঝে স্বাস্থ সুরক্ষাবিধি না ছাড়াই শ্রমিকদের দিয়ে জোরপূর্বক কাজ করানোর প্রতিবাদে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধসহ আহত ১০। পায়ে গুলিবিদ্ধ এক শ্রমিককে রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। কারখানাটির সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

সোমবার সকালে টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কের আশুলিয়ার নরসিংহপুর এলাকায় নেক্সট কালেকশন নামে কারখানার শ্রমিকেদর সাথে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। শ্রমিকদের অভিযোগ, মালিকপক্ষ ফোনে হুমকি প্রদান করায় করোনা সংক্রমণ ঝুঁকির মাঝেই ঢাকার বাইরে থেকে ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছেন তারা। কিন্তু আজ কারখানায় ফিরে কোন প্রকার স্বাস্থ সুরক্ষা ছাড়াই তাদের দিয়ে জোরপূর্বক কাজ করিয়ে নিতে চাপ প্রয়োগ করেন মালিকপক্ষ। এসময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কারখানা থেকের বেরিয়ে টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কে বিক্ষোভ করতে থাকে। এতে পুলিশ বাঁধা দিলে শ্রমিকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় পুলিশের ছোড়া বুলেট ও লাঠির আঘাতে গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ১০ শ্রমিক আহত হয়।

পরে আহতদের স্থানীয় নারী ও শিশু স্বাস্থ কেন্দ্র হাসাপাতালে প্রেরণ করা হয়। এদের মধ্যে দুই পায়ে গুলিবিদ্ধ এক শ্রমিককে রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এদিকে এঘটনার আগে সরেজমিনে আশুলিয়ার বিভিন্ন কারখানায় গেলে করোনা সংক্রমণ এড়াতে কারখানা কতৃপক্ষের কোন প্রকার স্বাস্থ সুরক্ষা প্রদান ও সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখার বিষয়ে অভিযোগ করেন শ্রমিকরা।

এছাড়া ভোর ৫টায় কারখানায় প্রবেশের দেয়ার কথা থাকলেও সকাল ৭টা পর্যন্ত মূল ফটকের সামনে তাদের দাড়িয়ে থাকতে হয়েছে বলে অভিযোগ করেন শ্রমিকরা।

এঘটনায় যে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে কারখানাটির সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলে জানালে পুলিশের কোন কর্মকর্তা এব্যাপারে অফিসিয়ালি এপ্রতিবেদকের সাথে কথা বলতে রাজি হয়নি।

এদিকে আওয়ার নিউজ সরেজমিনে আশুলিয়ার বিভিন্ন কারখানার সামনে উপস্থিত হলে নানা অজুহাতে কারখানার ভিতরে প্রবেশ করতে দেয়নি নিরাপত্তাকর্মীরা। ভক্সপপ- নিরাপত্তাকর্মী।



মন্তব্য চালু নেই