শিরোনাম:

সিডনি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের বিচারক হলেন ফারুকী

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। এ নামেই সবার প্রাণের মানুষ হিসেবে পরিচিত তিনি। নির্মাণের নতুন দিগন্তের সূচনা তৈরি করেছেন অনেক আগেই। শুধু দেশের সীমানায় নিজেকে ধরে রাখেননি। বিদেশের মাটিতেও রয়েছে তার অগণিত ভক্ত কিংবা পরিচিতি। নিজের নির্মাণের যাদু দিয়ে মন ছুঁয়ে দিয়েছেন দেশ ও দেশের বাইরের দর্শকের। পরিচিতি মিলেছে আন্তর্জাতিকভাবে।

এবার সিডনি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল (এসএফএফ) ২০২২ অফিশিয়াল প্রতিযোগিতার জুরি ঘোষণা করেছে। বিচারকরা প্রতিযোগিতা বিভাগের ১২টি সিনেমার মধ্যে থেকে একটিকে পুরস্কার দেওয়ার জন্য চূড়ান্ত করবেন। উৎসব শুরু হবে ৮ জুন, চলবে ১৯ জুন পর্যন্ত।

এই জুরিদের নামের সঙ্গে বাংলাদেশ থেকে যুক্ত হলেন লেখক-পরিচালক-প্রযোজক মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। অন্যান্য সদস্যরা হলেন প্রশংসিত অভিনেতা-পরিচালক ডেভিড ওয়েনহাম (অস্ট্রেলিয়া), যিনি জুরি সভাপতিও হবেন, বাফটা-মনোনীত লেখক ও পরিচালক জেনিফার পিডম (অস্ট্রেলিয়া), বার্লিন গোল্ডেন বিয়ার- বিজয়ী লেখক-পরিচালক-প্রযোজক সেমিহ কাপলানোলু (তুরস্ক), এবং কাওয়াকিতা মেমোরিয়াল ফিল্ম ইনস্টিটিউট, টোকিওর নির্বাহী পরিচালক, ইউকা সাকানো (জাপান)।

এবারের ১৩তম আসর বসবে সিডনিতে, আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত অফিশিয়াল প্রতিযোগিতা এটি। বিশ্বের সাহসী এবং আধুনিক চলচ্চিত্রকে স্বীকৃতি দেয় এই আসর। রোববার ১৯ জুন স্টেট থিয়েটারে ফেস্টিভ্যালের ক্লোজিং নাইট অনুষ্ঠানে সিডনি ফিল্ম প্রাইজের বিজয়ী ঘোষণা করা হবে।

(এসএফএফ) পরিচালক নাশেন মুডলি বলেন, ‘২০২২ সালের জুরি পাঁচজন অস্ট্রেলিয়ান এবং আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র পেশাদারদের সমন্বয়ে গঠিত যা অসাধারণ উচ্চতা এবং দৃষ্টিভঙ্গি। অফিশিয়াল প্রতিযোগিতায় এই মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে উদ্ভাবনী এবং অসাধারণ কিছু চলচ্চিত্র এবং চলচ্চিত্র নির্মাতাদের বৈশিষ্ট্য রয়েছে, তাই জুরিরা কিছু কঠিনভাবে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

আর্কিবল্ড-পুরস্কার বিজয়ী অস্ট্রেলিয়ান শিল্পী ডেল ক্যাথরিন বার্টন তার অফিশিয়াল প্রতিযোগিতা ফিচার ব্লেজ উপস্থাপন করবেন, একটি কিশোরের যাদুকরি গল্প যা একটি নৃশংস অপরাধের সাক্ষী।

এ ছাড়াও প্রতিযোগিতায় তাদের চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ার উপস্থাপনের জন্য এসএফএফ-এ উপস্থিত থাকবেন : ফরাসি-কম্বোডিয়ান লেখক-পরিচালক ডেভি চৌ (সিউলে ফিরে যান); ভেনেজুয়েলার পরিচালক এবং সহ-লেখক লরেঞ্জো ভিগাস (দ্য বক্স); আইরিশ লেখক-পরিচালক Colm Bairéad (The Quiet Girl); বলিভিয়ার পরিচালক আলেজান্দ্রো লোয়েজা গ্রিসি (উটামা); অস্ট্রেলিয়ান প্রযোজক ক্রিস্টিনা সিটন (আপনি একা হবেন না) এবং ইন্দোনেশিয়ান চলচ্চিত্র তারকা হ্যাপি সালমা (আগে, এখন এবং তারপর)।