শিরোনাম:

সেই সুমাইয়ার লেখাপড়ার দায়িত্ব নিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ

অপহরণের ২৪ দিন পর উদ্ধার হওয়া পাঁচ বছরের শিশু সুমাইয়ার লেখাপড়ার দায়িত্ব নিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। এ জন্য এককালীন একলাখ টাকা ও প্রতিমাসে পাঁচ হাজার টাকা করে দুমাসের পড়ার খরচ বাবদ নগদ আরও ১০ হাজার টাকা তিনি সুমাইয়ার পিতার হাতে তুলে দেন।

বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বনানীতে বাণিজ্যমন্ত্রীর বাসভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে সুমাইয়ার পিতা জাকির হোসেনের হাতে তিনি নগদ একলাখ ১০ হাজার টাকা তুলে দেন। এ সময় পুলিশের লালবাগ জোনের ডিসি মো. ইব্রাহিম হোসেন খান ও কামরাঙ্গী চর থানার ওসি মো. শাহীন ফকির উপস্থিত ছিলেন।

সুমাইয়ার পিতা বেকার থাকায় বাণিজমন্ত্রী টঙ্গীতে একটি বেসরকারি কারখানায় তার জন্য মাসিক ২০ হাজার টাকা বেতনে একটি চাকরির ব্যবস্থা করে দেন।

এ সময় বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সুমাইয়ার পিতা জাকির হোসেন লেখাপড়া মোটেই জানেন না। তিনি এসএসসি পাসও করেননি।’ নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সুমাইয়ার অপহরণের সংবাদ কানে আসার পর থেকেই তার বয়সী আমার নাতনির মুখটি বার বার ভেসে উঠেছিল। আমি প্রতি মুহূর্তে আল্লাহর দরবারে দোয়া করেছি, যাতে সুমাইয়াকে তার মা-বাবা ফিরে পান। সেভাবে আমি পুলিশের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছি। সুমাইয়াকে তার পিতা মাতা ফেরত পেয়েছেন, আমি আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করছি ।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আজ (বুধবার) থেকে সুমাইয়ার পড়াশোনার দায়িত্ব আমি নিলাম। এ জন্য তাকে প্রতিমাসে পাঁচ হাজার টাকা দেবো। আজ তার পিতা মাতার হাতে নগদ এক লাখ ১০ হাজার টাকা দিলাম।’

এ সময় বাণিজ্যমন্ত্রী সুমাইয়াকে নতুন জামা, খেলনা, পুতুল ও চকলেট উপহার দেন।

উল্লেখ্য, গত ৩ এপ্রিল রাজধানীর কামরাঙ্গীর চর এলাকা থেকে অপহৃত হয়েছিল শিশু সুমাইয়া। পরবর্তীতে পুলিশের অভিযানে ২৬ এপ্রিল উদ্ধার করা হয় তাকে।