মেইন ম্যেনু

ওআইসি সম্মেলনে যোগ দিতে সৌদি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাপানে চার দিনের সরকারি সফর শেষে অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশনের (ওআইসি) ১৪তম সম্মেলনে যোগ দিতে সৌদি আরবে পৌঁছেছেন।

শুক্রবার বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ একটি ফ্লাইটে সৌদি আরবের স্থানীয় সময় বিকাল ৫টা ২৫ মিনিটে জেদ্দার বাদশাহ্ আবদুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রী ওআইসি সম্মেলনে যোগ দিতে মক্কা যান।

সন্ধ্যায় তিনি মক্কাস্থ সাফা প্রাসাদে ওআইসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

এর আগে স্থানীয় সময় সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী ফ্লাইটটি টোকিওর হানেদা আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর ত্যাগ করে। জাপানের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তোশিকো আবে ও জাপানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাবা ফাতিমা বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান।

সৌদি আরব ওআইসি’র এই শীর্ষ সম্মেলনের আয়োজক দেশ। পবিত্র মক্কা নগরীতে ৩১ মে ও ১ জুন ওআইসির ১৪ তম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
শেখ হাসিনা শনিবার মক্কায় পবিত্র ওমরাহ পালন করবেন।

নবী হজরত মুহাম্মদ সা.-এর রওজা মোবারক জিয়ারত ও ফাতেহা পাঠের উদ্দেশে রবিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী জেদ্দা থেকে বিমান যোগে মদিনার পথে রওয়ানা হবেন। সন্ধ্যায় তিনি বিমানযোগে মদিনা থেকে জেদ্দায় চলে যাবেন।

সোমবার প্রধানমন্ত্রী ফিনল্যান্ডের হেলসিঙ্কির উদ্দেশে রাত ১টা ১০ মিনিটে (সৌদি আরব সময়) জেদ্দা ত্যাগ করবেন।
তিনি ওইদিন বেলা ১টায় (ফিনল্যান্ড সময়) হেলসিঙ্কি ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে পৌঁছাবেন।

প্রধানমন্ত্রী জাপান অবস্থানকালে দুই দেশের মধ্যে আড়াই বিলিয়ন ডলারের (চার প্রকল্পের জন্য) একটি সহযোগিতা চুক্তি সই হয়। তিনি জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে বৈঠক করেন। চুক্তি স্বাক্ষর শেষে একটি যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী টোকিওতে ২৫তম নিক্কেই আন্তর্জাতিক সম্মেলনে অন্যতম প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তৃতা করেন। এ ছাড়া তিনি প্রবাসী বাংলাদেশিদের একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানসহ বেশ কিছু অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

প্রধানমন্ত্রী ত্রিদেশীয় সফরের উদ্দেশে ২৮ ঢাকা ত্যাগ করেন। তার প্রথম গন্তব্য ছিল জাপান। পরের গন্তব্য সৌদি আরব ও ফিনল্যান্ড। ১২ দিনের সফর শেষে আগামী ৮ জুন তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।



মন্তব্য চালু নেই