শিরোনাম:

স্থানীয় বখাটেদের হামলার শিকার বশেমুরবিপ্রবির তিন শিক্ষার্থী, গ্রেফতার-১

স্থানীয় বখাটেদের হামলায় আহত হয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) তিন শিক্ষার্থী। গুরুতর আহত একজনকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে গোপালগঞ্জ সদর থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক সংলগ্ন বালুর মাঠে এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় অভিযুক্ত তিনজন গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গোবরার বাসিন্দা।

অভিযুক্তরা হলো ইমন, সাব্বির ও আব্দুল্লাহ। হামলার শিকার শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থী। হামলার শিকার শিক্ষার্থীরা হলো নিশান (২৬), নাহিদ (২৫) ও রনি (২৫)।

জানা যায়, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। গত রবিবার মোটরসাইকেলে হর্ণ বাজানো নিয়ে তর্কাতর্কি হলে বিরোধের সৃষ্টি হয়।

হামলার শিকার রনি বলেন, আমরা খাবার কিনে ক্যাম্পাসে ফেরার পথে পিছন থেকে তিনজন বখাটে ক্রিকেট খেলার ব্যাট, স্ট্যাম্প সহ অন্যান্য লাঠিসোঁটা দিয়ে আমাদের উপর হামলা করে।

এ ঘটনায় নিশান নামের এক শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আহত শিক্ষার্থীদের দেখতে হাসপাতালে যান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর সাদ্দাম হোসেন, গোপালগঞ্জ সদর থানার ওসি নাসির উদ্দিন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড রাজিউর রহমান বলেন, রেজিস্ট্রার বাদী হয়ে মামলা করবেন। এছাড়া, দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে বলেন পুলিশকে।

গোপালগঞ্জ সদর থানার ওসি নাসির উদ্দিন বলেন, কয়েকজনকে চিহ্নিত করা গেছে। তাদের গ্রেফতারের অভিযান চলবে।

এদিকে, আজ (১০ আগস্ট) সকল ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে মানববন্ধন করেছে পরিসংখ্যান ব্যুরোর শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে দোষীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানান তারা।