প্রধান ম্যেনু

স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টিনে মাহাথির, রোববার নামছে সেনাবাহিনী

সদ্য পদত্যাগ করা মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টিনে আছেন। করোনাভাইরাস আক্রান্ত ভান্ডার কুচিংয়ের সংসদ সদস্য (এমপি) ডা. কেলভিন ই লিই’র সঙ্গে সংস্পর্শে আসার পর কোয়ারেন্টিনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন আধুনিক মালয়েশিয়ার এই রূপকার।

সম্প্রতি ডা. কেলভিনের সঙ্গে মাহাথিরের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের কিছু ছবি প্রকাশ পায়। কিন্তু কেলভিনকে করোনাভাইরাসের কারণে গত ১৫ মার্চ সারোয়াক জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিষয়টি জানার পরই মাহাথির মোহাম্মদ স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টিনে থাকার ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, ‘আমি চাই না আমার জন্য কারও ক্ষতি হোক। তাই আমি স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টিনে গেলাম। আমি এখন কারও সঙ্গে সাক্ষাৎ করবো না।’

১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকা তার জন্য কোনো সমস্যা হবে না বলেও জানান মাহাথির।

এদিকে,করোনাভাইরাসের ঝুঁকি মোকাবিলায় মালয়েশিয়ার শহর থেকে গ্রাম-অঞ্চল পর্যন্ত পুলিশ টহল জোরদার করা হয়েছে। এ ছাড়া সচেতনতা বাড়ানোর জন্য পুলিশ কর্তৃক মাইকিং করা হচ্ছে।

রোববার থেকে পুলিশের পাশাপাশি সেনাবাহিনীর টহল জোরদার করার ঘোষণা দিয়েছে মালয়েশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল ইয়াকুব সাবরি।

মালয়েশিয়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ছাড়িয়েছে। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮৭ জন। এ ছাড়া আজ নতুন করে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো তিনজন।

তবে মালয়েশিয়া থাকা কয়েক লাখ বাংলাদেশি করোনাভাইরাসের কারণে গৃহবন্দী রয়েছেন। তাদের কারও শরীরে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে, দেশটিতে সরকার ঘোষিত ‘লকডাউন’ সময়ে শ্রমিকদের বেতন দিতে নির্দেশনা প্রদান করেছে মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সরকার ঘোষিত এই বন্ধের আদেশের দিনগুলোতে শ্রমিকদের বেতন ও অন্যান্য সুবিধা প্রদান করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে নিয়োগদাতা ও মালিকপক্ষকে।

মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান বলেছেন, চলমান নিষেধাজ্ঞা আদেশের অধীনে ৩১ মার্চ পর্যন্ত শ্রমিকদের বেতন পাওয়ার অধিকার রয়েছে। সরকার ঘোষিত এই বন্ধের আদেশের দিনগুলোতে শ্রমিকদের বেতন ও অন্যান্য সুবিধা প্রদান করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।



মন্তব্য চালু নেই