১২ লাখ রুপি জরিমানা গুনতে হচ্ছে বিরাট কোহলিকে

রোহিত শর্মা, মহেন্দ্র সিং ধোনি, ইয়ন মর্গ্যানের পর এবার বিরাট কোহলি। স্লো-ওভার রেটের জন্য জরিমানা গুনতে হচ্ছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে। রোববার মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে ৬৯ রানে হারের পাশাপাশি বিশাল অংকের জরিমানও গুনতে হলো আরসিবি অধিনায়ককে।

টুর্নামেন্টে প্রথমবার স্লো-ওভার রেট হলে অধিনায়কের ১২ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়; কিন্তু দ্বিতীয়বার একই অপরাধ হলে জরিমানার পরিমাণ হয় দ্বিগুণ।

অর্থাৎ অধিনায়কের ২৪ লাখ রুপি এবং দলের অন্য সদস্যদের ৬ লাখ রুপি ও ম্যাচ ফি’র ২৫ শতাংশ জরিমানা হবে। আর তৃতীয়বার স্লো-ওভার রেটের আওতায় পড়লে জরিমানার পরিমাণ হবে ৩০ লাখ রুপি।

এছাড়াও এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা। কোহলি হলেন চলতি টুর্নামেন্ট চতুর্থ অধিনায়ক, যার স্লো-ওভার রেটের জন্য জরিমানা হল।

এবারের আইপিএলে কোড অব কনডাক্ট অনুসারে প্রতি ঘণ্টায় বোলিং সাইডকে ১৪.১ ওভার বোলিং করতেই হবে। অযথা সময় নষ্ট না-করে বিসিসিআই এবার ৯০ মিনিটে ২০ ওভার বোলিং করা বাধ্যতামূলক করে দিয়েছে; কিন্তু নির্ধারিত সময়ে ওভার শেষ করতে না-পারায় জরিমানা দিতে হচ্ছে কোহলিকে।

মিনিমান ওভার রেট অফেন্স স্বীকার করেছেন আরসিবি অধিনায়ক কোহলি। এক বিবৃতিতে আইপিএলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, চলতি বছরে বিরাট কোহলির দল আইপিএল কোড অব কন্ডাক্টের মিনিমাম ওভার রেট অফেন্স করেছে। যার ফলে অধিনায়ক মি. কোহলির ১২ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে নাস্তানবুদ হয় প্রথম চার ম্যাচ জেতা রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু। প্রথমে ব্যাট করে চার উইকেটে ১৯১ রান তুলেছিল সিএসকে। বিস্ফোরক ইনিংস খেলেন রবিন্দ্র জাদেজা। মাত্র ২৮ বলে ৬২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন তিনি। শেষ ওভারে হার্শাল প্যাটেলের কাছ থেকে ৩৭ রান নেন জাদেজা। যার মধ্যে ছিল পাঁচটি ছক্কা ও একটি বাউন্ডারি। এছাড়াও দুর্দান্ত হাফ-সেঞ্চুরি করেন ফ্যাফ ডু’প্লেসিও।

রান তাড়া করতে নেমে ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১২২ রান তুলতে সক্ষম হয় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স। দেবদূত পাড্ডিকাল শুরুটা করেছিলেন ঝড়ো গতিতে। দলের রান যখন ৪৪, তখন ব্যক্তিগত ৮ রানে ফেরেন কোহলি। অধিনায়ক আউট হওয়ার পর তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে আরসিবি’র ব্যাটিং লাইনআপ।

১৫ বলে ঝোড়ো ৩৪ রান করে আউট হন পাড্ডিকলের পর ডাগ-আউটে ফেরেন ওয়াশিংটন সুন্দর, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এবং এবি ডি ভিলিয়ার্স। ব্যাট হাতে বিধ্বংসী থাকার পর বল হাতে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচের সেরা হন জাড্ডু।



মন্তব্য চালু নেই