‘৭ সেকেন্ডের অন্তরঙ্গ দৃশ্যের জন্য জোর করা হয়েছিল’

বলিউডে কাস্টিং কাউচ একটি বহু আলোচিত বিষয়। ছবিতে অভিনয় করার সুযোগের জন্য বহু অভিনেত্রী ও অভিনেতাদের কাস্টিং কাউচ এর প্রস্তাব দিয়ে থাকেন প্রযোজক-পরিচালকরা। তবে এর বিরুদ্ধে অনেক সময়ই বহু তারকা সরব হয়েছেন। অনেকেই সংবাদমাধ্যমের সামনে খোলাখুলি কথাও বলেছেন।

তাদের মধ্যে রয়েছেন অভিনেত্রী চিত্রাঙ্গদা সিং।

বলিউডের আবেদনময়ী অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম চিত্রাঙ্গদা। ‘বাবুমশাই বন্দুকবাজ’ ছবিতে শুটিংয়ের সময় একটি অভিজ্ঞতা হয়েছিল চিত্রাঙ্গদার। ছবির সেটে কী হয়েছিল তা সংবাদমাধ্যমের সামনে বলেছিলেন তিনি।

চিত্রাঙ্গদা জানান, সরাসরি তাকে কাস্টিং কাউচ এর প্রস্তাব দেওয়া হয়নি। ছবির শুটিং চলাকালীন পরিচালক তাকে আপত্তিকর কিছু দৃশ্যে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে অভিনয় করাতে চেয়েছিলেন। ইচ্ছাকৃতভাবে ছবির পরিচালক কুশান নন্দী চিত্রাঙ্গদাকে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যের বারবার টেক দেওয়াচ্ছিলেন।

এমনকি বর্ষার সময় চিত্রাঙ্গদার উদ্দেশে কিছু আপত্তিকর শব্দ ব্যবহার করেছিলেন বলে জানিয়েছিলেন এই অভিনেত্রী। পরিচালক চেয়ে ছিলেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীর সঙ্গে টানা ৭ সেকেন্ড ধরে একটি চুম্বনের দৃশ্যে অভিনয় করুক চিত্রাঙ্গদা।

চিত্রাঙ্গদা বলেছিলেন, আমরা শর্ট শেষ করলাম এবং তারপরে কুশান বললেন তার শট পছন্দ হয়নি। তিনি পেয়েছিলেন আমি নওয়াজের উপরে উঠে বসি এবং দীর্ঘ সময় ধরে চুম্বনের দৃশ্যের টেক দিই। এটাও বলা প্রয়োজন যে আমি তখন ওই দৃশ্যের জন্য একটি পেটিকোট পরেছিলাম। অভিনেত্রী আরও বলেন, আমরা একটি মমতাজের সট দিয়েছিলাম যেখানে একই জিনিস করতে বলেছিল কুশান।

সেই মমতাজের আমি এবং নওয়াজ চুমু খেয়েছিলাম। আর তারপরেও কুশান ঘনিষ্ঠ দৃশ্যের জন্য ৭ সেকেন্ড ধরে চুমু খেতে বলেছিলেন। এই ঘটনার পরে চিত্রাঙ্গদা ছবিটি না করার সিদ্ধান্ত নেন। পরিচালক কুশানও তাকে ফের ডাকেননি। এর থেকেই বোঝা যায় যে বলিউডের অভিনেত্রীদের কী ধরনের পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়। তবে এই ধরনের পরিস্থিতির বিরুদ্ধে বহুদিন ধরেই মুখ খুলছেন অভিনেতা এবং অভিনেত্রীরা।



মন্তব্য চালু নেই