শিরোনাম:

একার সিদ্ধান্তে কমিকে বরখাস্ত : ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন, এফবিআইপ্রধান জেমস কমিকে বরখাস্তের সিদ্ধান্তটি তার একার ছিল। একই সঙ্গে ট্রাম্প এ দাবিও করেছেন, যে তার বিরুদ্ধে কোনো তদন্ত চলছে না।

যে নির্বাচনে জিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প, সেই নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপের একটি অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করছিলেন জেমস কমি। ওই তদন্ত চলমান অবস্থাতেই হঠাৎ করে বৃহস্পতিবার কমিকে যুক্তরাষ্ট্রের তদন্ত সংস্থা এফবিআইয়ের প্রধানের পদ থেকে সরিয়ে দেন ট্রাম্প।

ওই তদন্তকে ভাঁওতাবাজি বলেও দাবি করেছেন ট্রাম্প।

কমিকে বরখাস্ত করার পর প্রথম দেয়া কোনো সাক্ষাৎকারে এনবিসি নিউজকে ট্রাম্প বলেছেন, আমি কমিকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন আমার বিরুদ্ধে কোনো তদন্ত চলছে কি না? সে বলেছে, না।

আমি জানি আমার বিরুদ্ধে কোনো তদন্ত চলছে না। কমিকে বরখাস্ত করে দেয়া চিঠিতেও বৃহস্পতিবার একই দাবি করেছিলেন ট্রাম্প।

এ ছাড়া এর আগে হোয়াইট হাউস থেকে কমিকে বরখাস্তের বিষয়ে যে ইঙ্গিত দেয়া হয়েছিল সেটিও উড়িয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প। হোয়াইট হাউস থেকে বলা হয়েছিল, বিচারপতিদের কথায় কমিকে বরখাস্ত করেছেন ট্রাম্প।

কমির বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, ও লোক দেখানো কাজ করছিল। এফবিআইয়ে অশান্তি চলছিল। আমি তাকে বরখাস্ত করতামই। আমার সিদ্ধান্ত।

নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপের যে অভিযোগটি উঠেছে আগের মতো এবারও সেটি উড়িয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প।

এফবিআইপ্রধানের পদ থেকে কমিকে বরখাস্তের দাবি আগেও উঠেছিল। নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপের যে বিষয়টি এফবিআই তদন্ত করছে, হোয়াইট হাউস সেটিকে মনে করছে, এ যাবৎকালে এফবিআই যতকিছু তদন্ত করেছে তার মধ্যে সবচেয়ে ছোট একটি বিষয়।

তবে সংস্থাটির ভারপ্রাপ্ত প্রধানও মনে করছেন, এ বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।