কলারোয়ায় বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমন

কলারোয়ায় বেড়েই চলেছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন। প্রশাসনের কঠোরতার পরেও মানুষের অবাধ চলাফেরার কারণে সংক্রমনের হার বাড়ছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। এতে উদ্বেগ ও আতঙ্ক দেখা দিয়েছে অনেকের মাঝে।

করোনা সংক্রমন রোধ ও স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সাধারণ মানুষের সচেতনতার বিকল্প নেই বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

জানা গেছে ১০, ১১ ও ১২ জুলাই করোনা রিপোট প্রকাশ হলে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৭ জন। এ পর্যন্ত উপজেলায় ৪৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তার মধ্যে ১৮ জনের করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছে। আর করোনামুক্তির দ্বার প্রান্তে রয়েছেন আরো কয়েকজন। ফলে বর্তমানে ৩১ জন করোনা সংক্রমনে কোয়ারেন্টাইনে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচ এন্ড এফপি) ডাক্তার জিয়াউর বলেন, ‘সচেতনতার বিকল্প নেই। এদিকে, কলারোয়া পৌর সদরের একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ৮জন। একই পরিবারে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ জন।বাকীরা বিভিন্ন ইউনিয়নের। একদিনে এতো আক্রান্তের ঘটনায় পুরো কলারোয়া আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ৫জন। তবুও মানুষের মধ্যে সচেতনতার ছাপ দেখা যায়নি। চলার পথে মুখে মাস্ক ব্যবহার করছেন না অনেকেই। উপজেলা প্রশাসন ও কলারোয়া থানা পুলিশ বার বার মানুষকে করোনা নিয়ে সতর্কবার্তা দিয়ে চলাফেরা এবং বিনা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে না আসার পরামর্শ দিলেও জীবিকার তাগিদে এবং নানা কারণেই মানুষকে বের হতে হচ্ছে। মানুষের অবাধ চলাচল আরো বেড়ে গেছে। বর্তমান যে হারে কলারোয়া উপজেলায় করোনা পজেটিভ রোগী বাড়ছে আগামি দিনগুলোতে সচেনতা ও স্বাস্থ্যবিধির উপর জোর না দিলে করোনা ভাইরাস আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে বলে ধারণা করছেন সংশ্লি¬ষ্টরা। তারা বলছেন, এখনই সকলে সচেতন না হলে আমাদের জীবন জীবিকার বিপর্যয় ডেকে আসতে পারে।



মন্তব্য চালু নেই