মেইন ম্যেনু

শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা আজ

আজ শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা। বৌদ্ধ ধর্মের প্রবক্তা গৌতম বুদ্ধের জন্মদিন। একই দিনে বুদ্ধের বোধি লাভ আর মহাপরিনির্বাণও হয়। দিনটির তাৎপর্য তাই বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের কাছে আরো বেশি। ‘জগতের সকল প্রাণী সুখী হোক’-এই ঐকান্তিক শুভ কামনার মধ্য দিয়ে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা আজ পালন করছেন পবিত্র বুদ্ধ পূর্ণিমা।

রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে উৎসব পালন হচ্ছে বুদ্ধপূজা ও শীল গ্রহণসহ বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে। বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে আজ বুধবার সরকারি ছুটি।

বুদ্ধের জন্মদিন উপলক্ষে বাংলাদেশ বুড্ডিস্ট ফোডারেশন বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এর মধ্যে রয়েছে আজ সকাল ৯টায় আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহার থেকে বের হবে শান্তি শোভাযাত্রা। এরপর সকাল ১০টায় শুরু হবে বুদ্ধপূজা ও শীল গ্রহণ। সকাল ১১টায় রয়েছে ভিক্ষুদের পি-দান কর্মসূচি। বিকেল ৬টায় `বুদ্ধ পূর্ণিমার আলোকে শান্তি, সমপ্রীতি ও মানবতা` শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শাহজাহান মিয়া।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধীদলীয় নেত্রী খালেদা জিয়া বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও বাংলাদেশ ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদ নেতারা দিবসটি বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীসহ দেশবাসীর প্রতি শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

বৌদ্ধ ধর্মমতে, আজ থেকে আড়াই হাজারেরও বেশি বছর আগে খ্রিস্টপূর্ব ৫৬৩ সালে বৈশাখী পূর্ণিমা তিথিতে বর্তমান নেপালে শাক্যরাজ শুদ্ধোধন ও রানী মহামায়ার কোল আলো করে জন্ম নিয়েছিলেন সিদ্ধার্থ। জন্মের কিছু দিন পরই সিদ্ধার্থের মা ইহলোক ত্যাগ করেন। তখন মাসী মহাপ্রজাপতি গৌতমী সিদ্ধার্থের লালন-পালন করেন। এ কারণে সিদ্ধার্থ `গৌতম` নামে পরিচিতি পান। গৌতম তার জীবন দিয়ে প্রমাণ করেছেন ত্যাগেই জীবন সার্থক ও সুন্দর হতে পারে। তিনি হয়ে ওঠেন মুক্তির নির্দেশনাদাতা-গৌতম বুদ্ধ।



মন্তব্য চালু নেই