প্রেমিকার পরিবারের হাতে মার খেল বাবা, প্রেমিকের আত্মহত্যা

মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ায় প্রেমিকের বাবাসহ পাঁচ জনকে পিটিয়ে আহত করেছে প্রেমিকার বাবাসহ পরিবারের লোকজন। এ অপমান সহ্য করতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে প্রেমিক রিয়াদ হোসেন।

বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার কাঞ্চন পূর্বপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের পিতা সালাউদ্দিন মিয়া জানান, তার ছেলে রিয়াদ হোসেনের সাথে একই এলাকার আব্দুল কুদ্দুস মিয়ার মেয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থী মেঘলা আক্তার এর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। মঙ্গলবার সকালে তারা দুই জন বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। বিকেলে রাজধানীর ডেমরা এলাকা থেকে তাদের দুই জনকে পরিবারের লোকজন বাড়িতে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে প্রেমিকা মেঘলার বাবা কুদ্দুস মিয়াসহ অন্যান্য লোকজন মিলে প্রেমিক রিয়াদ, রিয়াদের বাবা সালাউদ্দিন, ভাই রিফাত, ফুফা মান্নান ও বোন জামাই সেলিমকে পিটিয়ে আহত করেন। পরে এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করে বুধবার দুপুরে মেঘলার বাবা কুদ্দুস মিয়া হুমকিও প্রদান করে প্রেমিক রিয়াদের পরিবারকে।

অপমান সহ্য করতে না পেরে বুধবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে নিজ ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দেয় রিয়াদ। পরিবারের লোকজন দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা দেন। এ ঘটনার পর থেকে প্রেমিকা মেঘলার বাবাসহ অন্যান্যরা এলাকা থেকে পালিয়ে যান।
এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহমুদুল হাসান জানান, মৃত্যুর খবর পেয়ে লাশ উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।
তিনি বলেন, এ ব্যাপারে এখনো কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।



মন্তব্য চালু নেই