মেইন ম্যেনু

ঘরে ঢুকে এএসআইকে কুপিয়ে জখম, স্ত্রীর মৃত্যু

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে দুর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে পুলিশের এএসআই ফিরোজ আল মামুনের স্ত্রী শিল্পী বেগম নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত অবস্থায় মামুনকে মির্জাপুরের কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার বিকেলে পৌর এলাকার বাওয়ার কুমারজানী পূর্বপাড়া গ্রামে ঘরে ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে এএসআই ও তার স্ত্রীকে রক্তাক্ত করে দুর্বৃত্তরা।

স্থানীয়রা জানায়, বিকেলে এএসআইয়ের ছেলে মোয়াজের চিৎকার শুনে গিয়ে দেখি রক্তাক্ত অবস্থায় তার বাবা-মা পড়ে আছে। তাদের উদ্ধার করে কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যায় শিল্পী বেগমের মৃত্যু হয়। এএসআই মামুনের বাবা আবুল কাশেম ও মাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, শিল্প পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ফিরোজ আল মামুন গাজীপুরের শিল্পাঞ্চলে কর্মরত। কয়েকদিন আগে ছুটিতে বাড়ি আসেন মামুন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ফিরোজ আল মামুন জানান, ঘরের ভেতর তিনি এক রুমে আর অন্য রুমে স্ত্রী শিল্পী ঘুমিয়ে ছিলেন। কে বা কারা তাদের ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়েছে তা তিনি জানেন না।

এদিকে, চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ুয়া এএসআই মামুনের ছেলে মোয়াজ বিন মামুনের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে মামুনের বাবা আবুল কাশেম ও মাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

মির্জাপুর থানা পুলিশের ওসি একেএম মিজানুল হক বলেন, বিষয়টি খুব জটিল। তবে ঘটনাটি পারিবারিক বিরোধের জের ধরে ঘটতে পারে বলে ধারণা করছি। মামুনের ছেলে মোয়াজের তথ্যের ভিত্তিতে মামুনের বাবা-মাকে থানায় আনা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।



মন্তব্য চালু নেই