শিরোনাম:

আর্জেন্টিনাকে খাদের কিনারায় নিয়ে গেল সৌদির বিপক্ষে পোল্যান্ডের জয়

আর্জেন্টিনা দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে পারবে কি না, সেটা এখন কোটি টাকার প্রশ্ন। বাকি দুই ম্যাচে জিতলে লিওনেল মেসিরা পরের রাউন্ডে যাবেন হেসেখেলেই। পয়েন্ট হারালে যতটুকু সুযোগ থাকত, সেই সম্ভাবনাটাও নষ্ট করে দিল রবার্ট লেভানডফস্কির পোল্যান্ড।

হট ফেবারিট আর্জেন্টিনাকে ২-১ গোলে হারিয়ে কাতার বিশ্বকাপে প্রথম চমক উপহার দিয়েছিল সৌদি আরব। সৌদি দারুণ খেলল পোল্যান্ডের বিপক্ষেও, কিন্তু ভাগ্য হেলে রইল পোল্যান্ডের দিকে। এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে পেনাল্টি সুযোগ নষ্ট করা সৌদিকে ২-০ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে এক পা দিয়ে রাখল পোল্যান্ড।

পোল্যান্ডের এই জয়ে এখন সবচেয়ে বড় বিপদে আর্জেন্টিনা। আজ রাত একটায় মেক্সিকোর মুখোমুখি হবে লিওনেল স্কালোনির দল। সেই ম্যাচে হারলে কোনো হিসাব-নিকাশ ছাড়াই নিজের শেষ বিশ্বকাপে প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নেবেন মেসি।
মেসিদের সামনে সুযোগ থাকত, যদি পোল্যান্ডের বিপক্ষে কোনোভাবে ১ পয়েন্ট তুলে নিতে পারত সৌদি আরব। ‘সি’ গ্রুপে দুই ম্যাচ শেষে ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে পোল্যান্ড। সৌদির পয়েন্ট ৩। মেক্সিকোর পয়েন্ট ১। আজ আর্জেন্টিনা হেরে গেলে মেক্সিকোর পয়েন্ট হবে ৪। শেষ ম্যাচটা তাই আর্জেন্টিনার জন্য হবে শুধুই সান্ত্বনার। তাদের সামনে এখন একটাই সমীকরণ, জিততে হবে শেষ দুই ম্যাচ।

ম্যাচে ১৪ মিনিটে গোলরক্ষক ভয়চেক সেজনির কল্যাণে রক্ষা পায় পোল্যান্ড। সৌদি মিডফিল্ডার মোহামেদ কানোর শট ফেরান সেজনি। পাল্টা জবাবে ২৬ মিনিটে ক্রিস্টিয়ান বিয়ালিকের হেড ঠেকান সালেহ আল শেহরি।

আক্রমণে সৌদির দাপট থাকলেও সুযোগকে কাজে লাগাতে পেরেছে পোল্যান্ডই। ৩৯ মিনিটে রবার্ট লেভানডফস্কির কাটব্যাক থেকে পিওতর জিয়েলনস্কির শটে হার মানেন সৌদি গোলরক্ষক মোহামেদ আল ওয়াইস।

ম্যাচে হারের পেছনে ভাগ্য আর নিজেদেরকেই দোষ দিতে পারেন সৌদির ফুটবলাররা। প্রথমার্ধে পেনাল্টি পেয়েও দুই দফায় দারুণ সুযোগ নষ্ট করেছে হার্ভে রেনার্দের দল। ৪৩ মিনিটে আল শেহরিকে ডি-বক্সে ফাউল করেন পোলিশ ডিফেন্ডার বিয়ালিক। ভিএআরের সাহায্য নিয়ে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। অতিরিক্ত সময়ে সালেম আল দাউসারির শট ঠেকান সেজনি। ফিরতি বলে শট নিয়েছিলেন আল ব্রেইক। সেজনি ঠেকান সেই শটও।

দ্বিতীয়ার্ধে একাধিক সুযোগ কাজে লাগাতে না পেরে যখন হতাশায় ধুঁকছে সৌদি আরব, তখনই অমার্জনীয় ভুল করে বসলেন ডিফেন্ডার আল মালিকি। তার ভুলেই সৌদির কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন লেভানডফস্কি। ৮২ মিনিটে নিজেদের বক্সের সামনে সতীর্থের পাসে বল নিয়ন্ত্রণে নিতে গিয়ে মনোযোগ হারান আল মালিকি। ওত পেতেই ছিলেন লেভা। আল মালিকির পা থেকে বল কেড়ে নিয়ে সৌদির জালে বল জড়িয়ে বিশ্বকাপে নিজের প্রথম গোল তুলে নেন বার্সা তারকা।